বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৯:৫৭ অপরাহ্ন

আগুনের নেত্রী, তেঁতুল হুজুর ও সাম্প্রদায়িকতা এখন ইতিহাসের ডাস্টবিন’

আগুনের নেত্রী, তেঁতুল হুজুর ও সাম্প্রদায়িকতা এখন ইতিহাসের ডাস্টবিন’

অনলাইন বিজ্ঞাপন

আলোকিত কক্সবাজার ডেক্স:

তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, আগুনের নেত্রী, তেঁতুল হুজুর ও সাম্প্রদায়িকতা এখন ইতিহাসের ডাস্টবিন। তিনি বলেন, জঙ্গীবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও দারিদ্রতা আর থাকবে না। জঙ্গী সমর্থিত সরকার চলে গেছে। কিন্তু আমাদের বুকের ওপর তারা ঝঞ্ঝা রেখে গেছে। এগুলোকে আগামী দিনে দূর করতে হবে।

তথ্যমন্ত্রী আজ রাজধানীর উত্তরা তে অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে বার্ষিক ক্রীড়া- পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন । বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. দিলীপ কুমার নাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আনোয়ারা বেগম, ভাইস চেয়ারম্যান ইসরাফিল আলম, প্রফেসর ড. এম আবুল হোসেন শিকদার, ট্রাস্টিবোর্ডের পরিচালক গোলাম সারোয়ার কবির প্রমুখ।

হাসানুল হক ইনু বলেন, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে রাজাকার সমর্থিত জঙ্গি গোষ্টি আবার দেশকে দখল করার জন্য পায়তারা করছে। ‘আমাদের স্বপ্নের পেছনে বড় বাধা- ক্ষমতাচ্যুত রাজাকার সমর্থীত জঙ্গী নেতৃত্ব’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, এই জঙ্গীরা বাংলাদেশটাকে আবার দখল করে নেয়ার জন্য দেশে-বিদেশে চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র শুরু করছে। এদের থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার আহবান জানান তিনি। জঙ্গী রাজাকার সমর্থীত সরকার আর যাতে আগামী দিনে ক্ষমতায় আসতে না পারে তা নিশ্চিত করার উপর গুরুত্বারোপ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ইতিহাসের ডাস্টবিনে যুদ্বপরাধী, জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি, ১৫ ও ২১ আগস্টের খুনি,আগুন সন্ত্রাস, রাজাকার, তালেবান ও তেতুল হুজুররা থাকে। এরা থাকলে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা সামনের দিকে এগুতে পারবেনা। এদেরকে ঝেড়ে ফেলে দিতে হবে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, হৃদয়ের চেয়ে বড় কোনো সংবিধান নেই। জাতি সংঘ যা পারে না হৃদয় তা পারে।

আমরা দেশকে ভালোবেসে একদিন পাকিস্তানিদের উড়িয়ে দিয়ে ছিলাম। সুতরাং আগামী দিনে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলাদেশ গড়তে হলে নতুন প্রজন্ম ও তরুন সমাজকে ভালোবাসার টানে এ দেশ থেকে রাজাকার, তালেবান, আগুন সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও বখাটেদের উড়িয়ে দিতে হবে। শিক্ষার্থীদের ইতিহাস থেকে শিক্ষা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমরা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছি, বঙ্গবন্ধুদের হত্যাকারীদের বিচার করেছি। আগুন সন্ত্রাসীদেরও বিচার করবো। এদের কোনো ক্ষমা নেই। কারণ, রাজনীতির নামে মানুষকে নিয়ে কেউ খেলা করতে পারে না। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ফুলের শুভেচছা জানানো হয়। এ সময় থাকে ক্রেষ্টও প্রদান করা হয়। তিনি অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬ সালের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থী ও ক্রীড়াবিদদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

সূত্র-কালের কণ্ঠ


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM