বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৯:৩৯ অপরাহ্ন

জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন: সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করলেন এড: ফখরুল ইসলাম গুন্দু

জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন: সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করলেন এড: ফখরুল ইসলাম গুন্দু

অনলাইন বিজ্ঞাপন

বিশেষ প্রতিবেদক
কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন বিশিষ্ট আইনজীবী, লেখক ও আওয়ামীলীগ নেতা এডভোকেট ফখরুল ইসলাম গুন্দু। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় জেলা আইনজীবী সমিতির নিজস্ব চেম্বারে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন। আগামী ৩১ জানুয়ারী অনুষ্টেয় এ সম্মেলনের মাত্র ৬ দিন আগে তাঁর এ প্রার্থী ঘোষণার বিষয়টি অপ্রত্যাশিত নয় বলে জানান তিনি।
সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন- ‘সাধারণ সম্পাদক পদটি একটি রাজনৈতিক সংগঠনের মূল চালিকা শক্তি। এ পদে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি যদি সাংগঠনিক দায়িত্ব পালনে পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন না হন বা সেই ব্যক্তি বা নেতার দ্বারা সেই সংগঠনকে বিকশিত করা কোন অবস্থাতেই সম্ভব না হয় এবং তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার মতো যোগ্যতা সম্পন্ন ও দক্ষ না হন তাহলে সেই সংগঠনটি কোনভাবেই বিকশিত হবে না। বিশেষ করে আওয়ামীলীগের মত একটি বিশাল ও ঐতিহ্যবাহী গৌরবদীপ্ত সংগঠনের নেতৃত্ব দেয়ার মত যোগ্যতাসম্পন্ন সঠিক ব্যক্তিকে নেতা নির্বাচন না করলে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।’ এ কারণেই তিনি নিজেকে যোগ্য বিবেচিত করে বর্তমান সরকারের স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রার্থী হয়েছেন বলে জানান।
তিনি বলেন- ‘সরকার প্রধানের সেই ঘোষণা ও অঙ্গীকারকে বাস্তবায়ন করতে হলে জেলা সংগঠনের মূল নেতৃত্বকে মেধা, যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হওয়া ছাড়া বিকল্প কোন পথ খোলা নেই।’
বিগত ৩০ বছর ধরে সংগঠনে নিজের কর্মকান্ড তুলে ধরে তিনি আরো বলেন- ‘আমি ১৯৯১ সাল হতে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনকালে যে সমস্ত ছাত্রনেতা জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর শাখা সমূহে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে অত্যন্ত সফলতা ও দক্ষতার সাথে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করেছেন, তাদেরকেই বর্তমানে বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি/ সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করে সংগঠনের দায়িত্ব পালনের সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছেন কাউন্সিলররা।’
তিনি জানান- তার আমলে সহযোদ্ধা হিসাবে উপজেলা ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনকারীদের মধ্যে রাজপথের সাহসীযোদ্ধা কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি, দক্ষ ও মেধাবী সংগঠক আওরঙ্গঁজেব মাতবরকে বর্তমানে কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে, পেকুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি, কারা নির্যাতিত সাবেক ছাত্রনেতা, দক্ষ ও মেধাবী সংগঠক আবুল কাসেমকে পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে, চকরিয়া উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি চকরিয়া পৌরসভার সাবেক সফল ভারপ্রাপ্ত মেয়র সাবেক কারা নির্যাতিত ছাত্রনেতা জাহেদুল ইসলাম লিটুকে চকরিয়া পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি কারা নির্যাতিত ছাত্রনেতা আতিক উদ্দিন চৌধুরীকে চকরিয়া পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মেধাবী ও দক্ষ সংগঠক সাবেক ছাত্রনেতা মহসিন বাবুলকে মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে, টেকনাফ উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, দক্ষ ও মেধাবী সংগঠক বিশিষ্ট সাংবাদিক জাবেদ ইকবাল চৌধুরীকে টেকনাফ পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে, টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি দক্ষ সংগঠক কারা নির্যাতিত সাবেক ছাত্রনেতা ও বার বার নির্বাচিত টেকনাফ পৌরসভার সফল কাউন্সিলর নুরুল বশরকে টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, দক্ষ ও মেধাবী সংগঠক আবু তালেবকে কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল ছাত্রনেতা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য কক্সবাজার পৌর যুবলীগের সাবেক সফল আহবায়ক, মাহমুদুল করিম মাদুকে কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে ও চট্টগ্রাম সরকারী কমার্স কলেজ ছাত্র সংসদ এর সাবেক সফল ভি.পি ও জি.এস মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিককে মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করেছেন কাউন্সিলররা। এ কারণে তিনি সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হতে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন বলে জানান।
তিনি দৃঢ়তার সাথে আশা করেন, তৃণমূলের কাউন্সিলররা যে প্রত্যাশা ও আকাঙ্খা নিয়ে উল্লিখিত রাজপথের সহযোদ্ধাদেরকে উপজেলা ও পৌর শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করে সংগঠনের দায়িত্ব অর্পণ করেছেন, একইভাবে তাকে দায়িত্ব প্রদানেও ভুল করবেন না। কারণ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা কখনও সঠিক নেতৃত্ব নির্বাচনে ভুল করে না।
তিনি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলে তার দ্বারা সংগঠনের কোন ত্যাগী নেতা-কর্মী ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না বলে অঙ্গীকার করে বলেন- ‘ত্যাগী ও আদর্শিক নেতা-কর্মীগণকে যথাযথ সম্মান ও মূল্যায়নের মাধ্যমে সংগঠনকে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে একটি সুশৃঙ্খল শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলতে আমি নিরলসভাবে কাজ করে যাব। আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল স্তরের নেতা-কর্মীদের মান ও সম্মানের যথাযথ হেফাজত করব। কখনও অর্থের বিনিময়ে কোনো অপশক্তির কাছে আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মান সম্মান ভূলুণ্ঠিত হতে দেব না।’
তিনি দৃঢ়ভাবে বলেন- ‘আমার কাছে কোনো ধন সম্পদ বড় হবে না, দলের ত্যাগী ও আদর্শবান নেতা-কর্মীরাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় সম্পদ হিসাবে বিবেচনা করব।’
তিনি বলেন- কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের দীর্ঘ ৭ বছর যাবৎ সাধারণ সম্পাদক পদে অত্যন্ত দক্ষতা, সততা ও নিষ্ঠার সাথে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করে আমার সুদীর্ঘকালের রাজনৈতিক সহকর্মী, সহযোদ্ধা ও শুভানুধ্যায়ীদের পরামর্শে ও অনুপ্রেরণায় আমি আগামী ৩১ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে সাধারণ সম্পাদক পদের একজন প্রত্যাশী প্রার্থী হিসেবে কাউন্সিলরগণের সদয় বিবেচনার জন্য নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করছি।’
গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় জেলা আইনজীবী সমিতির নিজের চেম্বারে আয়োজিত উক্ত সাংবাদিক সম্মেলনে জাতীয়, আঞ্চলিক ও স্থানীয় পত্রিকার সাংবাদিকরা ছাড়াও তার রাজনৈতিক সহযোদ্ধারা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM