শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন

শনিবার মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন

শনিবার মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন

অনলাইন বিজ্ঞাপন

ওয়াহিদুর রহমান রুবেল॥

অবশেষে শনিবার অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন । দফায় দফায় সম্মেলন পেছানোর ফলে হতাশ নেতাকর্মীরা আবারো চাঙ্গা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সভাপতি/সম্পাদক প্রার্থীরা। তবে অনেক আবার সম্মেলন আদৌ হবে কিনা তা নিয়ে হতাশার কথাও জানিয়েছেন। তাদের দাবি এ পর্যন্ত ২৭ বার মহেশখালী আওয়ামীলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা করা হয়েছে।

shajahanতবে দীর্ঘদিন পর হলেও আর যেন সম্মেলন পেছানো না হয়। এদিকে আগামি ২৮ জানুয়ারি জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা করায় উপজেলার কোন সম্মেলন পেছানো সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতারা।

জানা যায়, ২০০২ সালে ৩০ সেপ্টম্বর মাসে মহেশখালী উপজেলার সম্মেলনের পর অদ্যবদি আর সম্মেলন অনুষ্টিত হয়নি। কয়েক দফা সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা হলেও অদৃশ্য কারণে তা আর আলোর মুখ দেখেনি। তবে আগামি ২৮ জানুয়ারি জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনার পর ১১ জানুয়ারি এক বর্ধিত সভায় শনিবার মহেশখালী আওয়ামীলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা করা হয়। এতে দলের নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসাহ উদ্দিপনা দেখা দিয়েছে। তারা চাই দীর্ঘ এক যুগ পেরিয়ে গেলেও এবার যেন সম্মেলন পেছানো না হয়। তাদের মতে এবারের সম্মেলনের মাধ্যমে মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগ সুবিধাভোগী হাইব্রিড এবং আত্মীয়করণ মুক্ত হবে।

এদিকে শনিবারের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকরা ভোটারদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে।

তবে বর্তমান নেতৃত্বের একটি গ্রুপ সম্মেলন পেছানোর ষড়যন্ত্র করছে বলেও দাবি করেছেন কর্মীরা। তারা জেলা আওয়ামীলীগ নেতাদের কাছে সম্মেলন পেছানোর আবেদন দিয়েছেন বলে খোঁজ নিয়ে জানা যায়।

তবে কর্মীদের দাবি ভাল হউক মন্দ হউক দলকে চাঙ্গা করতে সম্মেলন জরুরী। তাদের দাবি নেতৃত্বে কে আসবে সেটি আসল নয়। আসল হচ্ছে দলের জন্য কে কাজ করছে। দীর্ঘদিন যারা নেতৃত্বে ছিল তার দলকে কি দিতে পেরেছে। তা নিয়ে চিন্তা করবে দলের নেতাকর্মীরা।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ওসমান গণি জানান, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার সম্মেলন না হওয়ায় একদিকে যেমন নেতাকর্মীরা ঝিমিয়ে পড়েছে। তেমনি অন্যদিকে তাদের মাঝে মাঝে হতাশা আর ক্ষোভ চলে এসেছে। সম্মেলনের তাদের ক্ষোভ দুর হবে আর তারা দলের নেতা নির্বাচন করার সুযোগ পাবে।

জানা যায়, এবারে সম্মেলনে সভাপতি পদে প্রতিদন্ধিতা করবেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন ইব্রাহীম, বর্তমান সভাপতি আলহাজ আনুয়ার পাশা চৌধুরী।

উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন ইব্রাহীম জানান, সম্মেলন যথাসময়ে হবে বা সম্মেলন পেছানোর কোন সুযোগ নেই।

আর সাধারণ সম্পাদক পদে ৩জনের নাম শোনা যাচেছ। তাদের মধ্যে রয়েছে যুবলীগ সভাপতি মো: শাহ জাহান এবং উপজেলা আওয়ামীলীগ’র যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক মো: ফরিদুল আলম, হোয়ানক আওয়ামীলীগ সভাপতি মাস্টার মির কাশেম, ধলঘাটনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহসন উল্লাহ বাচ্চু’র নাম শোনা যাচ্ছে।

যুবলীগ সভাপতি মো: শাহ জাহান জানান, এ পর্যন্ত ২৭ বার সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা করা হয়েছে। বারবার সুবিধাভোগীরা দলের বিরোদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। আশা করি এবার আর তারিখ পেছানো হবে না। আর কাউন্সিলর তাদের যোগ্য নেতা বেছে নেবে। তিনি বলেন, এখন সময় এসেছে সুবিধাবাদী, আত্মীয়করণকারীদের চিহিৃত করে দ্রুত দলকে আগাছা ম্ক্তু করার।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM