সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৪:১৫ অপরাহ্ন

উখিয়াকে শিশুবিয়ে মুক্ত উপজেলা ঘোষণার উদ্যোগ

উখিয়াকে শিশুবিয়ে মুক্ত উপজেলা ঘোষণার উদ্যোগ

Exif_JPEG_420

অনলাইন বিজ্ঞাপন

উখিয়া সংবাদদাতা ॥   

শিশুবিয়ে, শিশু শ্রম ও শিশু শাস্তি বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া সমাজের প্রতিটি সচেতন জনগণের নাগরিক দায়িত্ব। শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য প্রাথমিক উদ্যোগ পিতামাতাদের নিতে হবে বলে উল্লেখ করেছেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাঈন উদ্দিন। তিনি বলেন, সমাজে শিশুদেরকে আয় উপার্জনের হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার না করে তাদের প্রতি আন্তরিক হতে হবে। প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত শিশু বিয়ে দেওয়া, ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করা এবং তাদের শারীরিক ও মানসিক শাস্তি দেওয়া একটি দন্ডনীয় সামাজিক অপরাধ। তাই প্রত্যেক অভিভাবকদের শিশুর প্রতি যতœশীল হওয়ার জন্য আহ্বান জানান তিনি। গত ১২ জানুয়ারী মঙ্গলবার রতœাপালং ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে ব্র্যাক এডভোকেসি ফর স্যোসাল ”েইঞ্জ ও জনসম্পৃক্ততায় সামাজিক ও আচরণগত পরিবর্তন প্রকল্প উখিয়া শাখার উদ্যোগে এবং ইউনিসেফ বাংলাদেশের সহযোগীতায় ওয়ার্ড উন্নয়ন কমিটির সদস্যদের নিয়ে আয়োজিত ইউনিয়ন সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শিশুদের পূর্ণবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দিয়ে পড়ালেখার প্রতি মনযোগ আকর্ষন বাড়ানোর জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান। এসময় উখিয়া উপজেলাকে শিশু বিয়ে মুক্ত উপজেলা ঘোষনা করার জন্য প্রশাসনিক উদ্যোগ নেওয়া হবে বলেও তিনি অভিভাবকদের অবহিত করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মৃদুল কুমার আশ্চর্য্য, ব্র্যাক সি-ফর-ডি প্রোগ্রামের জেলা ব্যবস্থাপক রোনাল্ড চাকমা, উপজেলা সিনিয়র ম্যানেজার সুকেশ কুমার সরকার। রতœাপালং ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আকতার কামাল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ছাবের আহমদ কনক্ট্রাটর, প্যানেল চেয়ারম্যান বাদশাহ আলম, ইউপি সদস্য আনজুমান আরা পাখি, শাহানুর বেগম, পুতুল রাণী বড়–য়া, নুরুল হক মনু, নেজাম উদ্দিন দুলাল, আবুল ফজল, মোক্তার আহমদ, মাহামুদুল হক, আলতাফ হোসেন। ব্র্যাক সি-ফর-ডি প্রোগ্রামের রতœাপালং ইউনিয়নের যোগাযোগ কর্মী আব্দুস সোবাহান, নাসরিন আকতার শেলি, সাবেকুন নাহার, হলদিয়াপালংয়ের গিয়াস উদ্দিন, রাজাপালংয়ের নুরুল আবছার, জিয়াউল হক টিপু, জালিয়াপালংয়ের মোহাম্মদ রফিক, ইসহাক, পালংখালীর রফিক উদ্দিন। উক্ত ইউনিয়ন সভায় ৯ ওয়ার্ডের প্রতিওয়ার্ড থেকে ১১জন করে ৯৯ জন ওয়ার্ড উন্নয়ন কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, রাজাপালং ইউনিয়নের যোগাযোগকর্মী জাফর আলম।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM