মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন

রামুতে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলায় চীফ হুইপ আ,স,ম ফিরোজ রাজাকার আলবদরদের ক্ষমা নেই

রামুতে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলায় চীফ হুইপ আ,স,ম ফিরোজ রাজাকার আলবদরদের ক্ষমা নেই

অনলাইন বিজ্ঞাপন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ,স,ম ফিরোজ এমপি বলেছেন, জয় বাংলা আওয়ামীলীগের শ্লোগান নয়, এ শ্লোগান ছিলো এদেশের নির্যাতিত, নিপীড়িত ও মুক্তিকামী মানুষের। ১৯৭১ সালে দেশজুড়ে পাক হানাদার, রাজাকার, আলবদর, আলশামস্দের বর্বরতা রুখে দিতে এদেশের নারী-পুরুষ দুঃসাহসী ভূমিকা পালন করেছে। এদেশের ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের প্রতিশোধ নিতে হলে রাজাকার, আলবদরদের বিচার নিশ্চিত করতে হবে। তাদের ক্ষমা নেই। ওই মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের নিয়ে বর্তমানে স্বাধীনতা বিরোধীরা মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। যারা মিথ্যাচার করে জাতি তাদের চিনে ফেলেছে। রামুতে সাত দিন ব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার ৬ষ্ঠ দিনের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধ শেষ হলেও স্বাধীনতা বিরোধীরা এখনো দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের বীজ বপন করে চলেছে। স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের বিরুদ্ধে এদেশে মুক্তিকামী মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ করতে হবে।

‘মুক্তিযুদ্ধের বিজয় বীর বাঙ্গালীর ঐতিহাসিক উত্তরাধিকার’ এ শ্লে¬াগানে রামুতে সাতদিন ব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সোমবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭ টায় রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু-কক্সবাজার আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল ও রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম। এতে সভাপতিত্ব করেন, প্রবীন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রবীর বড়–য়া।
ছাত্র ইউনিয়ন কক্সবাজার জেলা শাখার সহ সভাপতি অর্পন বড়–য়ার সঞ্চালনায় স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে আরো অংশ নেন, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এর কক্সবাজার প্রতিনিধি জাহেদ সরওয়ার সোহেল, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর আহমদ, সাধারণ সম্পাদক তানভীর সরওয়ার রানা, কো চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা, মাষ্টার ফরিদ আহমদ, রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়–য়া, সাবেক ইউপি সদস্য গোলাম কবির, কবি তাপস মল্লিক, ছাত্র ইউনিয়ন কক্সবাজার জেলা শাখার সহ সভাপতি সৌরভ দেব, উদীচি সংগঠক বোরহান মাহমুদ প্রমূখ।
স্মৃতিচারণ শেষে বিজয় মঞ্চে নৃত্য একাডেমী রামু, সৃজন সংগীত ভূবন কক্সবাজার এবং রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় সহ বিভিন্ন শিল্পী ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।
রামু বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর আহমদ জানান, ৭দিন ব্যাপী এ মেলায় প্রতিদিন বিজয় মঞ্চে বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ, আলোচনা সভা, আবৃত্তি, গণসংগীত, দেশের গান, ব্যান্ডশো, লোকজ অনুষ্ঠান ও নাটক মঞ্চায়ন করা হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মঞ্চের স্মৃতিচারণ ও আলোচনা অনুষ্ঠানে জাতীয় পর্যায়ের রাজনীতিবিদ, মুক্তিযোদ্ধা, বুদ্ধিজীবি, সমাজকর্মী নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন। এছাড়া গণসংগীতের আসর, কবিতা পাঠ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। মেলায় বিভিন্ন পন্যের শতাধিক ষ্টল স্থান পেয়েছে। ৩০ ডিসেম্বর শুরু হওয়া এ মেলা আজ ৫ জানুয়ারি শেষ হবে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM