মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

২০১৫ তে এশিয়ার সফলতম দল বাংলাদেশ

২০১৫ তে এশিয়ার সফলতম দল বাংলাদেশ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

স্পোর্টস ডেক্স

ওয়ানডে ক্রিকেটে ২০১৫ ছিল বাংলাদেশের জন্য স্বপ্নের বছর। মাশরাফি বিন মুর্তজার দল ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছে। এরপর ওয়ানডে সিরিজে হারিয়েছে তিন পরাশক্তি পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে। পরে জিতেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও। আর এই সাফল্য ২০১৫ সালে ওয়ানডেতে এশিয়ার সবচেয়ে সফল দল বানিয়েছে বাংলাদেশকে। টাইগারদের পেছনে পড়েছে ভারত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান।

বছরটা শুরু হয়েছিল হার দিয়ে। কিন্তু টাইগাররা অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে গিয়ে সাফল্য তুলে নিতে থাকে। সেখানে মাশরাফির দল হারিয়েছে আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ডকে। এরপর ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ও তাদের আসর থেকে বিদায় করে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে যায় বাংলাদেশ। কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের কাছে আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে হার মানলে শেষ হয় টাইগারদের স্বপ্ন যাত্রা।

২০১৫ এর ওয়ানডে ক্যালেন্ডার শেষ হলে দেখা যাচ্ছে এশিয়ার মাঝে সবচেয়ে বেশি সাফল্য বাংলাদেশের। এই বছর খেলা ১৮ ওয়ানডের ১৩টিতে জিতেছে মাশরাফির দল। সাফল্য ৭২ শতাংশ। এশিয়ার মাঝে সবচেয়ে বেশি। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা দুইবারের ওয়ানডে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ভারত ২৩ ম্যাচ খেলে জিতেছে ১৩টিতে। সাফল্য ৫৬ শতাংশ। একবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কা ২২ ম্যাচ খেলেছে। জিতেছে ১১টিতে। সাফল্যের হার ৫০ শতাংশ। আর সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান ২৭ ম্যাচ খেলে ১২টিতে জিতেছে। সাফল্য ৪৪ শতাংশ।

বিশ্বকাপের পরও বাংলাদেশ সাফল্য ধরে রাখে। আরো সফল হয় তারা। নিজেদের মাটিতে টাইগাররা খেলে ৪টি ওয়ানডে সিরিজ। এবং ৪টিই জিতে অকল্পনীয় সাফল্য তুলে নেয়। বিশ্বকাপের পর পাকিস্তান আসে বাংলাদেশে। তাদের ৩ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে টাইগাররা। এরপর ভারতকে ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-১ এ হারায়। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ হারলেও ২-১ এ সিরিজ জিতে উৎসবে মাতে টাইগাররা। সর্বশেষ আসে জিম্বাবুয়ে। তাদেরও ৩ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে বাংলাদেশ।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM