বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০৭:২৭ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীনের জোরালো ভূমিকা চাইলেন ডেপুটি স্পিকার

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীনের জোরালো ভূমিকা চাইলেন ডেপুটি স্পিকার

অনলাইন বিজ্ঞাপন

চীনের পিপল’স কংগ্রেসের ভাইস চেয়ারম্যান ওয়েই ঝিয়াওমিং-এর সঙ্গে আলাপকালে ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু। ছবি সংগ্রহীত।

 

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে চীনের জোরালো ভূমিকা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু। তিনি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মায়ানমার থেকে জোরপূর্বক বিতাড়িত রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের বড় অংশকে বাংলাদেশে বাসস্থানের সুযোগ দিয়ে মানবতার অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। এখন তাদের নিজ ভূমিতে শান্তিপূর্ণ প্রত্যাবাসন প্রয়োজন।

আজ বুধবার (২৪ এপ্রিল) ডেপুটি স্পিকারের সংসদ ভবনস্থ কার্যালয়ে চীনের আনহুই প্রাদেশিক পিপল’স কংগ্রেসের ভাইস চেয়ারম্যান ওয়েই ঝিয়াওমিং-এর সঙ্গে আলাপকালে এ সব কথা বলেন তিনি।

এ সময় তাঁরা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন, বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

ডেপুটি স্পীকার বলেন, বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার চীন। বাংলাদেশে বৈদ্যুতিক প্লান্ট, সড়ক ও যোগাযোগ, সেতু ও রেলপথ নির্মানসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নে চীনের ভূমিকা প্রশংসাযোগ্য। নবায়নযোগ্য জ্বালানীতে চীন দক্ষতা অর্জন করেছে, বাংলাদেশে সোলার ও কৃষি প্রযুক্তিতে আরো বেশি বিনিয়োগে চীনের সহযোগিতা কামনা করছি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাকসহ অনেক পন্যের সারাবিশ্বে সুনাম রয়েছে, চীন সেসকল পন্য বাংলাদেশ থেকে আমদানী করতে পারে। দুদেশের বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভারসাম্য আনতে চীনা বাজারে আরো বেশি বাংলাদেশী পণ্যের শূল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার প্রয়োজন।

জবাবে চীনের ভাইস চেয়ারম্যান বাংলাদেশকে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বন্ধুপ্রতীম দেশ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, বন্ধুপ্রতীম বাংলাদেশের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে চীনের ভূমিকা সবসময়ই ইতিবাচক। পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুন্দর পরিবেশ রয়েছে। আমরা আরো বেশি বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।

সূত্র-কালেরকণ্ঠ


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM