বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

নৌপথে মিয়ানমারের বিজিপি ও সেনাসদস্যদের ফেরত পাঠাবে বাংলাদেশ

নৌপথে মিয়ানমারের বিজিপি ও সেনাসদস্যদের ফেরত পাঠাবে বাংলাদেশ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ফাইল ছবি

 

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের ২৮৫ জন বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) ও সেনাসদস্যকে তারা নৌপথে ফেরত নিবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) বিকেলে একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক জাফর ওয়াজেদ রচিত ‘ভুবন জোড়া শেখ হাসিনার আসনখানি’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আজ সকাল পর্যন্ত মিয়ানমারের বিজিপি ও সেনাবাহিনীর মোট ২৮৫ জন সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়ে আমরা আলাপ আলোচনার মধ্যে আছি। এ মাসের ২২ তারিখ তাদেরকে ফেরত নেওয়ার জন্য মিয়ানমারকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ক্লিয়ারেন্স দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘তবে ২২ তারিখে ফেরত নিতে পারবে কিনা সেটি নির্ভর করছে সমুদ্রের পরিস্থিতি ও সেখানকার সার্বিক পরিস্থিতির উপর। তবে তাদেরকে ফেরত নেওয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার সম্মত হয়েছে। নৌপথেই তাদেরকে ফেরত নিয়ে যাওয়া হবে। যে জাহাজ তাদের ফেরত নিতে আসবে সে জাহাজেই মিয়ানমারে বিভিন্ন কারণে আটকে পরা ১৫০ বাংলাদেশি নাগরিককেও তারা নিয়ে আসবে।’

এক প্রশ্নের উত্তরে হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির রাজনৈতিক দুর্বলতা হলো তারা যেকোনো কিছুর জন্যই বিদেশিদের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরে। গত কয়েকদিনে তারা বিভিন্ন দূতাবাসে বৈঠক করেছে। বাংলাদেশে ক্ষমতার মালিক জনগণ। জনগণের কাছে যদি বিএনপি না যায় কোনো বিদেশি দূতাবাস তাদের কোলে করে ক্ষমতায় বসিয়ে দিবে না।

জনগণই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করে রাষ্ট্রপরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছে উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতাদের বক্তব্য সার্কাসে পরিণত হয়েছে। এই সার্কাস থেকে বের হয়ে আসতে না পারলে বিএনপি কখনও জনগণের দল হয়ে উঠতে পারবে না।

এর আগে, ‘ভুবন জোড়া শেখ হাসিনার আসনখানি’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচনকালে হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনার মতো নেতৃত্ব সারাবিশ্বে বিরল। শেখ হাসিনা শুধু বাংলাদেশের নেতা নন, এখন বিশ্বনেতায় রূপান্তরিত হয়েছেন। বিদেশি নেতারাও তার প্রসংশা করেন।

তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক শেখ হাসিনাকে বলেছেন- আপনি শুধু আমারই নয় আমার পরিবারেরও অনুপ্রেরণা। ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত আমার সঙ্গে দেখা করে বলেছে, আমরা যদি আরব বিশ্বে একজন শেখ হাসিনা পেতাম তাহলে আজ গাজায় যুদ্ধ হতো না।’

সূত্র-কালবেলা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM