শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন

স্ত্রী ও প্রেমিক ফরিদ পরিকল্পিত ভাবে হত্যাকান্ডে জড়িত

স্ত্রী ও প্রেমিক ফরিদ পরিকল্পিত ভাবে হত্যাকান্ডে জড়িত

অনলাইন বিজ্ঞাপন

আরিফুল ইসলাম,কুতুবদিয়া

কুতুবদিয়ায় ফিশিং বোট শ্রমিক বাবুল খুনের ঘটনায় স্ত্রী সহ ৪ জন আটক করেছে পুলিশ।প্রথমে নিহত বাবুলের স্ত্রী  আটক রেখা হত্যার ঘটনা ভিন্ন খাতে নেয়ার চেষ্টা করলেও পরে বেরিয়ে আসে পরিকল্পিত হত্যাকান্ড।যার সূত্র ধরে পুলিশ রেখার প্রেমিক লেমশীখালী ইউনিয়নের নুরুল ইসলামের পুত্র ফরিদ,সহযোগী একই এলাকার মোজাম্মেলের পুত্র গোলাম রহমান, মো.করিমের পুত্র বহনকারি রিক্সা চালক আলতাজ।

থানা সূত্র জানায়,বড়ঘোপ ইউনিয়নের মাতবর পাড়ার মৎস্য শ্রমিক বাবুল হত্যাকান্ডে তার বড় ভাই মো.তাহের বাদী হয়ে হত্যাা মামলা দায়ের করেন গতকাল রবিবার। মামলা নম্বর ০৫।আটকদের গতকাল রবিবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো.সাহাব উদ্দিন‘র আদতালতে হাজির করা হলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন বাবুলের স্ত্রী রেখা(২৫) , প্রেমিক ফরিদও রিক্সা চালক আলতাজ । আটক গোলাম রহমান চাতুরতা করায় বিজ্ঞ আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। থানার ওসি অং সা থোয়াই বলেন,আটককৃতরা পরিকল্পিত হত্যাকান্ডে ৫ জন অংশ নেয়ার কথা জানিয়েছে।

হত্যা কান্ডের দিন রেখা দীর্ঘ দিনের প্রেমিক ফরিদ এর সাথে সার্বক্ষণিক মোবাইলে যোগাযোগের সূত্র ধরেই  হত্যার রহস্য বেরিয়ে আসে। ওসি আরো বলেন প্রথমে বাবুলকে চকরিয়া থেকে ফেরার পথে চেতনানাশক ঐষধ সেবন করিয়ে কুতুবদিয়ায় রাতে পার হয়ে হাত.পা.মুখ বেধে ২ হাজার টাকায় রিক্সা ভাড়া নিয়ে দরবার রোড হয়ে কৈয়ারবিল বিন্দা পাড়া সড়কে রাত সাড়ে ১১ টার দিকে বাবলা গাছের সাথে ঝুলিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পাশের লবন মাঠে ফেলে রেখে চলে যায় কিলাররা। এ ঘটনার পর কক্সবাজার সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার(সার্কেল চকরিয়) মো.মাসুদ আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন গতকাল রবিবার। পলিশ অপর আসামীদের গ্রেফতারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM