বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৫৩ অপরাহ্ন

কক্সবাজার পৌরসভা ও ‘প্রবৃদ্ধির’ সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

কক্সবাজার পৌরসভা ও ‘প্রবৃদ্ধির’ সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

অনলাইন বিজ্ঞাপন

 

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পৌরসভা পর্যায়ে টেকসই আর্থসামাজিক উন্নয়ন ত্বরান্বিতকরণের লক্ষ্যে কক্সবাজার পৌরসভা, সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে বাস্তবায়িত ‘প্রবৃদ্ধি’ প্রকল্পের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি সাক্ষরিত হয়। সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মো: মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী ও প্রবৃদ্ধি প্রকল্পের টিম লিডার মার্কাস এহমান এক অনুষ্ঠানে ওই চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে কক্সবাজার পৌরসভার আওতাধীন ৫২০টি হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস এবং রিসোর্ট রয়েছে। যাতে ১ লক্ষ ২০ হাজারেরও বেশী পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা আছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির একটি সম্ভাবনাময় খাত হিসেবে পরিগণিত এই পর্যটন সেক্টরের আকার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি (বিডা)- এর তথ্য মতে, ২০১৯ সালে দেশের জিডিপিতে পর্যটন খাতের অবদান ৩ শতাংশ। কক্সবাজারে ক্রমবর্ধমান এই খাত প্রতিনিয়ত শত শত নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে। তবে, চাহিদার সাথে তাল মিলিয়ে দক্ষ মানবসম্পদের অভাব পর্যটন খাতে নতুন করে চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করছে।

মেয়র মোঃ মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের উপর জোর দিয়ে পৌরসভায় প্রবৃদ্ধি প্রকল্পের যাত্রা শুরু করায় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবৃদ্ধির ভূমিকা ও গুরুত্ব তুলে ধরে মেয়র স্থানীয় ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতার আহ্বান জানান। সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের উপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে পৌরসভা এই এলাকার মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বদ্ধপরিকর এবং একই সাথে এই প্রচেষ্টায় প্রবৃদ্ধির অংশিদারিত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

প্রবৃদ্ধির টিম লিডার মার্কাস এহমান, কক্সবাজার পৌরসভায় প্রকল্পের সম্প্রসারণের বিষয়ে জোর দিয়ে টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবৃদ্ধির ভূমিকার উপর আলোকপাত করেন।

তিনি বলেন, পৌরসভাগুলো একে অন্যের সাফল্যে উৎসাহিত হয়ে নিজেদের এলাকায় এধরনের কর্মসূচি প্রণয়নের মাধ্যমে স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে এই উদ্যোগ সফলভাবে স্থানীয় পর্যায়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক টেকসই উন্নয়নের প্রসার ঘটাবে।

তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও সুইসকন্টাক্টের যৌথ উদ্যোগে বাস্তবায়নাধীন প্রবৃদ্ধি প্রকল্পটি বর্তমানে দেশের সাতটি পৌরসভার সাথে স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন বিষয়ে কাজ করছে।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র-১ সালাউদ্দিন সেতু, প্যানেল মেয়র-৩ ইয়াছমিন আক্তার, কাউন্সিলর যথাক্রমে হেলাল উদ্দিন কবির, রাজ বিহারী দাশ, এস আই এম আক্তার কামাল আজাদ, নুর মোহাম্মদ মাঝু, এহেসান উল্লাহ, ওসমান সরওয়ার টিপু, শাহেনা আক্তার পাখি, জাহেদা আক্তারসহ পৌরসভার কর্মকর্তা ও প্রবৃদ্ধির কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পৌরসভার সমাজ উন্নয়ন কর্মকর্তা শামীম আক্তার।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM