মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০৫:৫০ অপরাহ্ন

মহেশখালীতে শাকসবজি চাষের বাম্পার ফলন-চাষীদের মুখে হাসি

মহেশখালীতে শাকসবজি চাষের বাম্পার ফলন-চাষীদের মুখে হাসি

অনলাইন বিজ্ঞাপন

সরওয়ার কামাল, মহেশখালী

কক্সবাজারের মহেশখালীতে শাকসবজি চাষের বাম্পার ফলন চাষীদের মুখে অট্রহাসি। মহেশখালীতে উৎপাদিত সবজি-মুলা শাক, মুলা, সরিষা, মিষ্টি কুমড়া, বাংলা লাউ, ফরাস সিম, দেশী সিম, টমেটো, বেগুন, ফেলন ঢাল, মাড়িশ শাক ও ধনিয়া সহ আরো অনেক সবজি চাষ হয়ে থাকে এবছর ঠিকমত রোদ-বৃষ্টি হওয়াতে সবজির বাম্পার ফলন হওয়ায় প্রায় চাষীরা স্বাবলম্বী হয়েে উঠেছে। তাই সবার মনে খুশির বন্যা বইছে।

ভেজাল খাদ্যদ্রব্যে আজ জনস্বাস্থ্য বিপদাপন্ন হয়ে পড়েছে। এলাকার জনগোষ্টিকে জনস্বাস্থ্য সর্ম্পকে সচেতন ও পুষ্ঠির চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে ককক্সবাজার কোষ্টাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (সিসিডিএফ) একটি  স্বেচ্ছাসেবী উপক‚লীয় কমিউনিটি ভিত্তিক সংগঠন বিষমুক্ত জৈব পদ্ধতিতে শাকসবজি প্রর্দশনী প্লট করেছে মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়নের পুইঁছড়া গ্রামে সিসিডিএফ এর নির্বাহী পরিচালক সুব্রত দত্ত বলেন, সিসিডিএফ একটি মানবিক ও প্রকৃতি বিষয়ক স্থানীয় সংগঠন। ইতিমধ্যে বেশকিছু প্রান্তিক কৃষক-কৃষানী উক্ত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রদর্শনী প্লট দেখে আকৃষ্ট হয়ে নিজেরা ও উদ্যেগ গ্রহন করেছেন।

এলাকার কৃষক সিসিডিএফ এর পরমার্শে বনলতা নামে একটি নার্সারী গড়ে তুলেছে। গুয়াটুনি, কছু  মাঝির মতো কৃষক কৃষানীরা ও এগিয়ে এসেছেন জৈব পদ্ধতিতে শাকসবজি চাষ করতে। চাষাবাদে  গোবর, কম্পোষ্ট সার ও রোগ বালাই দমনে ছাই, নিমপাতা, নিসুদ্ধিপাতা ও গোছানা ব্যবহার করে রোগ বালাই দমন  করা হয়। এর ফলে মাটির উর্বরতাা শক্তি ও অটুট থাকে এবং উৎপাদিত শাকসবজি খেতে প্রচুর স্বাদ হয়। এ ব্যাপারে মহেশখালী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শামসুল আলম জানান, এবারে শাকসবজির বাম্পার হয়েছে তাই চাষীরা স্বাবলম্বী হয়েছে বিষ মুক্ত শাকসবজি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারিতা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM