মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন

উখিয়া প্রেসক্লাব নির্বাচনে আইনী বাঁধা নেই

উখিয়া প্রেসক্লাব নির্বাচনে আইনী বাঁধা নেই

অনলাইন বিজ্ঞাপন

রফিক মাহামুদ, উখিয়া

উখিয়া প্রেস ক্লাবের নির্বাচন নিয়ে আইনী কোন জটিলতা নেই। নির্বাচনী সকল কার্যক্রম চালিয়ে নিতে নিযুক্ত নির্বাচন কমিশনকে আর কোন বেগ পেতে হবে না। যথারীতি আগামী ১৯ ডিসেম্বর উখিয়া প্রেস ক্লাবের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে কোন সন্দেহের অবকাশ নেই। প্রত্যেক ভোটারেরা ওইদিন নিঃসন্দেহে ভোট প্রদান করে প্রেসক্লাবের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করে সাংবাদিকদের সুনাম ও ঐতিহ্য ধরে রাখবেন এমনটাই প্রত্যাশা করলেন সাধারণ ভোটারগণ।

নির্বাচন কমিশন থেকে একজন আহবায়ক সরে দাঁড়ানোর কারণে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে কমিশন কিছুটা জটিলতায় আবদ্ধ হয়। গতকাল রবিবার নির্বাচন কমিশনের নিযুক্ত অপর ২ জন নির্বাচন পরিচালনাকারী কর্মকর্তা উখিয়া প্রেসক্লাবের প্রার্থী ও সাধারণ ভোটারদের নিকট এ বিষয়টি পরিস্কার করেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল আমিন ছিদ্দিক জানান, আমরা উখিয়া প্রেসক্লাবকে আদালতমুখী করতে চাই না।

কারণ অনেক কষ্টের বিনিময়ে অর্জিত শ্রমের ফসল এ প্রেসক্লাব। শত প্রতিকূলতা ও ষড়যন্ত্রের মাঝেও আমরা সাংবাদিকদের সুনাম ও ঐক্য ধরে রাখার স্বার্থে নির্বাচনী কার্যক্রম চালিয়ে যাব এবং যথারীতি আগামী ১৯ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে সাংবাদিকদের বিভ্রান্ত হওয়ার মত কিছুই হয়নি। অপর নির্বাচন কমিশনার সাংবাদিক নুরুল হক খাঁন জানান, আমরা কারো পক্ষপাতদুষ্ট নির্বাচন কমিশনার নই।

সাংবাদিকদের ঐক্যের স্বার্থে যথাসময়ে নির্বাচন চালিয়ে নিতে এ কমিশন প্রস্তুত রয়েছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল আমিন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত গতকাল রবিবার বিকাল ৩টায় উখিয়া প্রেসক্লাব ক্যাম্পাসে এক মতবিনিময় সভায় সিনিয়র সাংবাদিক রফিক উদ্দিন বাবুল, এডভোকেট আব্দুর রহিম, ফারুক আহমদ, গফুর মিয়া চৌধুরী, দীপন বিশ্বাস, রতন কান্তি দে, কমরুদ্দিন মুকুল, হুমায়ুন কবির জুশান, হানিফ আজাদ, নুর মোহাম্মদ শিকদার, শফিউল ইসলাম আজাদ, মিজান-উর-রশিদ মিজান, আবদুর রহিম সেলিম, শহীদুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম মিরাজ, মোসলেহ উদ্দিন, রফিক মাহমুদ, ওবাইদুল হক আবু চৌধুরী, মাহমুদুল হক বাবুল সহ অন্যান্য সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় সভা শেষে চলমান নির্বাচনে কার্যকরী পরিষদের ৪ জন নির্বাহী সদস্য যথাক্রমে ফারুক আহমদ, হানিফ আজাদ, হুমায়ুন কবির জুশান ও মিজান-উর-রশিদ মিজান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় কমিশন তাদেরকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। অন্যান্য পদের নির্বাচন ১৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM