বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ০৬:৪৯ অপরাহ্ন

পনের আগস্ট ও একুশে আগস্ট একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা

পনের আগস্ট ও একুশে আগস্ট একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা

অনলাইন বিজ্ঞাপন

ছবি-অনুষ্ঠানে উপস্থিতির একাংশ।

 

 

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, কক্সবাজার জেলা শাখার উদ্যোগে খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল, গণভোজ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে শহরের লালদিঘীর পাড়স্থ জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ৭৫-এর কালো রাতে জাতির পিতাকে স্ব-পরিবারে হত্যা করে। খুনিরা ভেবেছিল দেশকে পাকিস্তান বানাবে কিন্তু পারেনি। বঙ্গবন্ধুবিহীন দেশকে তাঁর কন্যা শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে পরিচালিত করছে দেখে ঘাতকরা তাকে নিশানা করে। সে কারণে জননেত্রী শেখ হাসিনারকে হত্যা উদ্দ্যেশে ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করা হয়। আল্লাহর অশেষ রহমতে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা।

জেলা যুবলীগের সাাবেক সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুরের সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন পুতু-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে- কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক বলেন- ১৫ আগস্ট একটি কালো অধ্যায়। এটি শোকাবহ ও বেদনাদায়ক দিন। শত্রুরা বঙ্গবন্ধুর নাম নিশ্চিহ্ন করতে এ হত্যাকাÐ ঘটিয়েছে। ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তার আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি। বাঙালি জাতি এখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে বলেই প্রতিটা বাঙালির হৃদয়ে তিনি জড়িয়ে আছেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও তারা হত্যা করতে চেয়েছিল। মহান রাব্বুল আলামিন শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়ে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করার জন্যই শেখ হাসিনা দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছেন।

অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- রিয়াজ উল আলম, কামাল শামশুদ্দিন প্রিন্স চেয়ারম্যান, মাসুদ আলম, জাহাঙ্গীর আলম, নবীউল হক আরকান, আবুল কাশেম, জসিম উদ্দিন, জমির জামি, দিদারুল ইসলাম (রুবেল), রউফ নেওয়াজ ভুট্টো, কাজী দিদার, নজরুল ইসলাম, রাসেল উদ্দিন সুজন, এড. ফায়সাল। এতে যুবলীগ নেতৃবৃন্দদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জেলা যুবলীগ নেতা আশরাফ উদ্দিন আহমেদ, এড. নুরুল ইসলাম সায়েম, আনোয়ার করিম, মোঃ তারেক, এড. ইমরুল কায়েস, মো: সিরাজদৌল্লাহ, মুমিনুল হক, আহসান সুমন, জুনাইদ কবির জুয়েল, এড. রবিউল এহসান, ইয়াছিন আরাফাত রিগ্যান, মুহাম্মদ ফারুক, রুবাইছুর রহমান, এড. আরিফ, ফিরোজ উদ্দিন খোকা, আতা উল্লাহ আতিক, সাজ্জাদ পারভেজ নয়ন, ছুরুত আলম রওশন, বাবু, জসিম উদ্দিন আকাশ, গাজী শাহজাহান, কফিল উদ্দিন, পারভেজ মোশারফ, মোজাহেদ, গিয়াস প্রমুখ-সহ অসংখ্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভার পূর্বে ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্টে বর্বরোচিত হামলায় সকল শহীদদের মাগফেরাত কামনা করে খতমে কোরআন, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, এতিমদের মাঝে খাবার পরিবেশন কর্মসূচী এব ংজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও যুবলীগ প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনির প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পন-সহ অন্যান্য কর্মসূচী পালিত হয়। শেষে গণভোজে অংশগ্রহণ করেন কক্সবাজার-৩ আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, সাবেক জেলা আওয়ামীগের সাবেক সহ-সভাপতি রেজাউল করিম, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM