বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন

প্রাণের জুস খেয়ে শিশুসহ একই পরিবারের ৮ জন অসুস্থ

প্রাণের জুস খেয়ে শিশুসহ একই পরিবারের ৮ জন অসুস্থ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

ছবি-অসুস্থ শিশুরা। ইনসেট জুস।

কক্সবাজার টেকনাফের হ্নীলায় প্রাণ কোম্পানির ফ্রুট জুস খেয়ে শিশুসহ একই পরিবারের ৮জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। রাতেই তাদের কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

৫ ফেব্রুয়ারি রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম সিকদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

অসুস্থরা হলেন- হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম সিকদার পাড়ার আবু বক্করের মেয়ে নাসিমা আক্তার (১৮) ও সেলিনা (১৯), আবু বক্করের ভাই আব্দুর রহিমের মেয়ে রাফিয়া (৩), রাফসানা (৫), নাজমা (৯) ও ছেলে রামিম (৭) এবং আরেক ভাই জসিম উদ্দিনের ছেলে শাওন (২) ও মো. জালালের ছেলে জিসান (৩)।

স্বজনদের বরাতে ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ বলেন, ঘটনার দিন রোববার সন্ধ্যায় স্থানীয় আবু বক্করের বাড়িতে তাদের এক আত্মীয় বেড়াতে আসেন। আসার সময় দোকান থেকে শুকনো খাবার ও বড় একটি জুসের প্যাকেট সঙ্গে এনেছিলেন। বাড়ির লোকজন এ জুস খেয়ে সবাই অচেতন হয়ে পড়ে। পরে বাড়ির অন্য সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় এক বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়।

অসুস্থদের চাচা জহির আহমেদ বলেন, বেড়াতে আসা এক আত্মীয়ের আনা প্যাকেটজাত জুস পান করার ২ থেকে ৩ মিনিটের মধ্যে বাড়ির ৮জন অসুস্থ বোধ করেন। এক পর্যায়ে সকলেই অচেতন হয়ে পড়ে। প্রথমে তাদের হ্নীলা স্টেশনের স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) পরিচালিত হাসপাতালে পাঠানো পাঠানো। পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয় বলে জানান জহির।

এব্যাপারে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) আশিকুর রহমান বলেন, রোববার রাত ১১ টার দিকে টেকনাফ থেকে অচেতন অবস্থায় শিশুসহ ৮ জনকে হাসপাতালে আনা হয়। পরে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের জ্ঞান ফেরে। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় তারা মানসিকভাবে ‘বিমূর্ষ’ হয়ে পড়েছেন বলে জানান এ চিকিৎসক।##


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM