বাংলাদেশ, , বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

চকরিয়ায় নবগ্রহ মন্দিরের পাশে মাদকের হাট, নষ্ট হচ্ছে পবিত্রতা

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-০৯-২০ ১৬:২৭:০১  

নিজস্ব সংবাদদাতা॥ 
চকরিয়া পৌরসভার ভরামুহুরী গ্রামের শ্রী শ্রী নবগ্রহ মন্দিরের পবিত্রতা নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে একটি মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবী চক্র। প্রতিনিয়ত ওই মন্দির লাগোয়া একটি দোকানে মাদকের বিকিকিনি জমজমাট হয়ে উঠা এবং ওই দোকানে মাদকসেবীদের আখড়ায় পরিণত হওয়ায় এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি গত কয়েকমাস ধরে মন্দিরের ওপর ও মন্দির সংলগ্ন বসতবাড়ির ওপর চক্রটির উচ্ছৃক্সক্ষল মাদকসেবীদের ছোঁড়া ঢিল ও মল নিক্ষেপের কারণে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে মন্দিরের পুরোহিত ও বসতবাড়ির সদস্যরা। কয়েকদিন আগে এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় মন্দিরের পুরোহিত ও তার পরিবার সদস্যদের বেদম পিটিয়ে আহতও করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
বিষয়টি থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধরের নজরে আনার পর কয়েকদিন আগে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাজমুল হাসানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু মাদকসেবীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে লাপাত্তা হলেও এখনো তাদের তৎপরতা কমেনি। বরং মাদকসেবী চক্রটি আরো বেপরোয়া হয়ে চকরিয়ার একমাত্র শ্রী শ্রী নবগ্রহ মন্দিরের পুরোহিত শ্রীপদ আর্চায্য (৬৫) ও তার পরিবার সদস্যদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে বলে তার পুত্র মিন্টু কুমার আর্চায্য অভিযোগে দাবি করেছেন।
মিন্টু আর্চায্য আরো জানান, শ্রী শ্রী নবগ্রহ মন্দিরের একেবারে লাগোয়া তারাচরণ জলদাসের একটি চায়ের দোকান রয়েছে। ওই দোকানে মদ, গাঁজা, ইয়াবা ট্যাবলেটসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য বিক্রি করা হয়। আর মাদক সেবনের জন্য প্রতিদিন তার দোকানে ভিড় করে অসংখ্য মাদকসেবী। মুলত মাদকের এই আখড়াকে কেন্দ্র করে নবগ্রহ মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট হচ্ছে।
মিন্টু আর্চায্য বলেন, ‘তারাচরণের দোকানে মাদক সেবনের জন্য বিভিন্ন এলাকার চিহ্নিত ও দাগী অপরাধীরাও জড়ো হন। কয়েকদিন আগে এসব অসামাজিক কার্যকলাপের প্রতিবাদ করায় চিহ্নিত কয়েকজন মাদকসেবী দলবদ্ধ হয়ে হামলা চালায় আমার বাড়িতে। এ সময় তারা আমার বাবা শ্রীপদ আর্চায্য (৬৫) ও ছোট ভাই মিঠুন আর্চায্যকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, ‘কোন অবস্থাতেই মাদক বিকিকিনি এবং নবগ্রহ মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট হতে দেওয়া হবে না। ইতিমধ্যে থানার একজন অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এসব কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িতদের ধরতে।’


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা