বাংলাদেশ, , রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

নয় বছর বয়সে অ্যাপ তৈরি করলো হানা

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২২-০৯-২৫ ২৩:২০:৩৩  

 

আইফোনের জন্য অ্যাপ বানিয়ে ইতিমধ্যেই আলোড়ন ফেলেছে দুবাইতে বসবাসকারী নয় বছর বয়সী ভারতীয় মেয়ে হানা মুহাম্মদ রফিক। এবার অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক তার প্রশংসা করলেন। হানা প্রথমে নিজেকে কনিষ্টতম আইওএস ডেভেলপার দাবি করে কুককে ইমেইল করেছিল। তার তৈরি করা ‘হানাস’ একটি গল্প বলার অ্যাপ, যাতে বাবা-মায়েরা নিজের কণ্ঠে সন্তানের জন্য গল্প রেকর্ড করে রাখতে পারে।

গালফ নিউজের প্রতিবেদন অনুসারে, হানা তার বানানো অ্যাপ এবং অন্যান্য অর্জনের বর্ণনা দিয়ে অ্যাপলের প্রধান নির্বাহীকে ইমেইল করেছিল। ইমেইলের প্রতিক্রিয়ায় তিনি হানার প্রশংসা করেছেন।

হানার বানানো বিনামূল্যের আইওএস অ্যাপে বাচ্চাচের জন্য আকর্ষণীয় গল্প রয়েছে। বর্তমান যুগে বাচ্চাদের পড়ানোর জন্য খুব কম বাবা-মায়েরই সময় রয়েছে, এই উপলব্ধি থেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে অ্যাপটি তৈরি করেছে বলে জানিয়েছে হানা। অ্যাপটি তৈরির সময় হানার বয়স ছিল মাত্র আট।

হানা তার ইমেইলে লিখেছিল, ‘আমি পাঁচ বছর বয়সে কোডিংয়ের সাথে পরিচিত হই এবং মনে হচ্ছে আমি বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে তা শিখেছি। আমার তৈরি করা অ্যাপে আমি অন্য কারো পূর্বের তৈরি করা কোনো কোড ব্যবহার করিনি। এই অ্যাপের প্রায় দশ হাজার লাইন কোড আমি নিজে লিখেছি। দয়া করে অ্যাপটি দেখুন। ‘

খালিজ টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হানা যখন ঘুমাচ্ছিল তখন তার বাবা মোহাম্মদ রফিক প্রথম টিম কুকের ইমেইলটি পড়েন। তিনি বলেছেন, ‘আমি তাকে ঘুম থেকে জাগিয়েছিলাম এবং তাকে খবরটি দিয়েছিলাম। সে সঙ্গে সঙ্গে উঠে বসল এবং দৌড়ে ওয়াশরুমে গেল। অন্য সময় তাকে ঘুম থেকে উঠাতে কয়েক মিনিট সময় লেগে যায়্য। ‘

হানার ইমেইলের উত্তরে কুক লিখেছেন, ‘এত অল্প বয়সে আপনার সব চিত্তাকর্ষক কৃতিত্বের জন্য অভিনন্দন। আপনি আপনার কাজ চালিয়ে যান। ভবিষ্যতে আশ্চর্যজনক কিছু করবেন আপনি। ‘

জানা জানিয়েছে, গল্প বলার অ্যাপটি তৈরি করতে তাকে দশ হাজার লাইন কোড লিখতে হয়েছে। অ্যাপটি ব্যবহার করে বাবা-মায়েরা তাদের সন্তানের জন্য নিজের কণ্ঠে গল্প রেকর্ড করতে পারবে।

সূত্র : এনডিটিভি, কালেরকণ্ঠ


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা