সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন

পর্যটক হয়রানি করতো তারা; আটক-১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ৬ আগস্ট, ২০২২
  • ৪ বার পড়া হয়েছে

 

শুক্রবার (৫ আগস্ট) ভোর ৫টায় কক্সবাজারে প্রবেশ করতে শুরু করে দূরপাল্লার বাস। পরে পর্যটক ছদ্মবেশে এসব বাসে ওঠেন কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের সদস্যরা। গাড়ি থেকে নামতেই পর্যটক ভেবে তাদের নিয়েই টানাহেঁচড়া শুরু করেন পর্যটন জোনের দালাল চক্রের সদস্যরা। এ সময় ১৯ জন দালালকে আটক করে পুলিশ। জব্দ করা হয় ১৪টি টমটম।

আটক ব্যক্তিরা হলেন জাফর আলম (৩৮), মো. আব্দুলাহ (১৮), ইসমাইল (২৪), ইব্রাহিম (৩৭), নুর আলম (২৬), চাঁদ মিয়া (১৯), নজু আলম (৩৫), রুবেল (২৬), জুয়েল মিয়া (৩২), সাদেকুর (২৬), সৈয়দ নুর (৩০), সাহিদ (২৬), হেলাল উদ্দিন (৪০), সাগর (২৩), গিয়াস উদ্দিন (৩৩), সৈয়দ আলম (৩৬), মো. হোসেন (৪৭), রবিউল হাসান (২০) ও ইমরান (২১)।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশ সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে অটোরিকশার চালকের বেশ ধরে একটি চক্র পর্যটকদের হয়রানি করে আসছে। তারা পর্যটকদের অল্প ভাড়ায় ভালো হোটেলে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মৌখিক চুক্তি করা হোটেলে নিয়ে যেতেন। পরে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ ব্ল্যাকমেল করতেন। পর্যটকদের মালামাল ছিনতাই, ইভটিজিং এমনকী ধর্ষণের মতো ঘটনার সঙ্গেও তারা জড়িত। এই চক্রের কিছু সদস্য পর্যটকদের ফাঁদে ফেলে আপত্তিকর ছবি তুলে টাকা হাতিয়ে নিতেন।

 

বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে অভিযান চালাতে দিন হিসেবে শুক্রবারকে বেছে নেয় ট্যুরিস্ট পুলিশ। পরিকল্পনামতো পর্যটক ছদ্মবেশে দালালদের আটক করা হয়। আটকরা তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ স্বীকার করেছেন।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম বলেন, আটকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পর্যটকদের নানাভাবে হয়রানি করা কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ
নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102