বাংলাদেশ, , বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

জেলাজুড়ে ধুমপানে নবীণ প্রজন্মের ভবিষ্যৎ বিপন্ন!

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-০৯-২০ ০৮:৫৬:০৪  

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও::

প্রগতিশীল দুনিয়ায় নিত্যনতুন আবিস্কার মানব জীবনকে একদিকে যেমন দিয়েছে স্বাচ্ছন্দ্য ও গতিময়তা অন্যদিকে  তেমনি সঞ্চারিত করেছে হতাশ ও উদ্বেগের। পুরাতন সামাজিক ও নৈতিকতা মুল্যবোধের অবক্ষয় ঘটছে। দিনে দিনে নতুন মুল্যবোধ  ও সবসময় গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেনি। সামগ্রিকভাবে হতাশা আদর্শহীনতা, বিভ্রান্তি, বেকারত্ব,রাজনৈতিক অস্থিরতা, সামাজিক ধর্মিয়ও নৈতিক মূল্যবোধের অবক্ষয় প্রভৃতি সব মিলিয়ে নানাবিধ কারণে নবীণ প্রজন্মকে ধুমপানে আসক্ত করে তুলছে। তাই বর্তমান সময়ে বিশ্ব সভ্যতা যে কয়টি মারাত্মক সমস্যার সম্মুখিন, ধুমপান তার বিপন্ন ভবিষ্যতের অন্যতম। ধুমপানের অবহেলায় অবৈধ বিস্তারের দেশবাসী আজ শান্ত। জীবনের জয়গানে ধুমপানের ছোঁয়ায় বিনষ্ট। ছুঁয়ে যাচ্ছে জেলার প্রত্যান্ত গ্রামঞ্চলের তরুণ, শিশু ও কিশোরদের তাজা প্রাণে । জানা যায়, মাদকের সৃষ্টি হয় ধুমপান থেকে। এ পর্যন্ত বিজ্ঞানী, গবেষক ও চিকিৎসকরা মাদকাসক্তির এবং ধুমপানের অন্তরালে যে কারণ গুলো সক্রিয় চিহ্নিত করেছেন তা হল –  সঙ্গদোষ, কৌতুহল, সহজ আনন্দ,লাভের বাসনা, প্রথমা যৌবনের মনোভাব ও পারিবারিক কলহ ইত্যাদি। মা, বাবা, ভাই-বোনের মধ্যে ঘনিষ্টতা কম, সে সব পরিবারের সদস্যরাই বেশি ভাগেই ধুমপান করে থাকে বলে  একাধিক সুত্রে প্রকাশ। এ সময়ে মানুষ-পরিবার, দেশ-জাতি তথা বিশ্বের জন্য বেশি শ্রম দেয়। যদি ধুমপানে আসক্ত হয়ে দেশ জাতির কল্যাণ না করতে পারে তাহলে তাদের মত দূর্ভাগা আর নেই। পাশাপাশি সরকারী-বেসরকারী মহল থেকে শুরু করে গণমাধ্যম মানুষের সক্রিয় অংশ গ্রহণ পূর্বক ধুমপান মুক্ত দেশ গড়ে তোলে এই বিশ্বের মাঝে সবাইকে জানিয়ে দিতে চাই যে,ধুমপানকে ‘না’ বলে তরুণ প্রজন্মের ভবিষ্যৎ প্রাণ  ফিরিয়ে দিতে প্রস্তুত।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা