শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৬:৪৯ অপরাহ্ন

পেকুয়ায় বাদীকে মারধর লাঞ্চিতের অভিযোগ

পেকুয়ায় বাদীকে মারধর লাঞ্চিতের অভিযোগ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী,

কক্সবাজারের পেকুয়ায় মামলার বাদীকে প্রকাশ্য মারধর লাঞ্চিতের অভিযোগ গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘঠনাটি ঘঠেছে, গত শুক্রবার রাতে উপজেলার প্রাণকেন্দ্র কলেজ গেইট চৌমুহুনী এলাকায়। এনিয়ে বাদী চরম নিরাপত্তাহীনতার শিকার হয়ে সদর গন্তব্য যাত্রা বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন।

জানা যায়, ঘটনারদিন রাত আনুমানিক ১০টার দিকে উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের নোয়াখালী গ্রামের রাহাতআলীপাড়া এলাকার মৃত মোহাম্মদ মিয়ার পুত্র ব্যবসায়ী মোঃ জামাল হোসেন প্রয়োজনীয় পণ্য সংগ্রহে পেকুয়া কলেজ গেইট চৌমুহুনীস্থ্য হাবিব কম্পিউটার নামের দোকানে আসেন। চাঞ্চল্যকর চাঁদাবাজী মামলার বাদী ব্যবসায়ী জামাল হোসনের পেকুয়া চৌমুহুনী আগমনের খবর পেয়ে একই উপজেলার উজানটিয়া এলাকার আকতার আহমদের পুত্র একাধিক মামলা ও জিডি’র পলাতক আসামী অভিযুক্ত মোঃ জালাল উদ্দিন উত্তেজিত হয়ে মামলার বাদী ব্যবসায়ী জামাল হোসনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ হাকাবকা করে লাঠি হাতে ওই দোকানের সামনে ছুটে যান। একপর্যায়ে অভিযুক্ত জালাল উদ্দিন মামলার বাদী ব্যবসায়ী জামাল হোসনকে দোকানের ভিতর থেকে টেনে হিঁচড়ে বাইরে বের করে এনে অতর্কিত মারধর ও লাঞ্চিত করে।

হামলার শিকার ব্যবসায়ী জামাল হোসন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সম্প্রতি অভিযুক্ত হামলাকারী জালাল উদ্দিন পত্র পত্রিকায় তার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ বন্ধ রাখার কথা জানিয়ে মোটাংকের চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত চাঁদা না দেওয়ায় অভিযুক্ত জালাল উদ্দিন মিথ্যা তথ্য জানিয়ে তার বিরুদ্ধে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করায় তিনি সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করেন। ওই ঘঠনার জের ধরে অভিযুক্ত চাঁদাবাজ জালাল উদ্দিন ওই ব্যবসায়ী জামাল হোসনকে প্রকাশ্য মারধর ও লাঞ্চিত করেছেন বলে ভুক্তভুগী সাংবাদিকদের কাছে মন্তব্য করেছেন। এঘটনার সত্যতা জানতে অভিযুক্ত জালাল উদ্দিনের ব্যবহৃত মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তার মোবাইল সংযোগ বন্ধ পাওয়া যায়। অপরদিকে, ঘঠনাস্থলের ব্যবসায়ীরা এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পেকুয়া থানার ওসি মোঃ আবদুর রকিবের সাথে যোগাযোগ করলে লোকমুখে বিষয়টি তিনি শুনলেও ভুক্তভুগী কোন অভিযোগ দেয়নি বলে জানান।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM