শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৮:০১ অপরাহ্ন

লবণ চাষীদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করছে সরকার-বিসিক চেয়ারম্যান আহমদ হোসেন খান

লবণ চাষীদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করছে সরকার-বিসিক চেয়ারম্যান আহমদ হোসেন খান

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কটির শিল্প করপোরেশন(বিসিক) চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) আহমদ হোসেন খান বলেছেন, দেশের সিংহভাগ লবন উৎপাদন করে চাহিদা পুরণ করছে কক্সবাজারের চাষীরা। তাই তাদের স্বার্থের প্রতি লক্ষ্য রেখে কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। পাশাপাশি লবন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্র অর্জন করতে চাষীদের ঋণ সুবিধা প্রদান, পরিচিত কার্ড, লবনের নায্য মূল্য নির্ধারণ, তাদের সমস্যার সমধান, ট্রেনিং ব্যবস্থা এবং বিজ্ঞানসম্মতভাবে উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

আজ রবিবার সকালে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে লবণ উৎপাদন বৃদ্ধি, লবণের ন্যায্য মূল্য প্রাপ্তি, দাদন ব্যবস্থা রোধ, লবণ চাষীদের ঋণ সমস্যার সমধান এবং মাধ্যসত্ব ভোগীদের হাত থেকে লবণ চাষীদের রক্ষা করা ইত্যাদি সুপারিশমালা প্রণয়েনের লক্ষ্যে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্য প্রদানকালে তিনি উপরোক্ত কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, লবণের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ধরে রাখতে পারলে বিদেশ থেকে আমাদের লবণ আমদানি করতে হবে না। বিসিক চায় না বিদেশ থেকে লবণ আমদানি হউক।

তিনি বলেন, সরকার প্রান্তিক চাষীদের সহজ শর্তে ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা করছে। আর যদি চাষী ও মিল মালিকদের মাঝে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক না থাকে তবে লবণ নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার কোন সমধান হবে না।

জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন‘র সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় বক্তব্য রাখেন, বিসিক পরিচালক(উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ) নুরুল ইসলাম, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্ন-সচিব মো: মনজুর আলম ভূঁয়া।

এসময় লবন চাষী ও মিল মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় লবন চাষী সমিতির নেতারা অভিযোগ করে বলেন, এক শ্রেণীর সুবিধাভোগীদের স্বার্থ রক্ষা করতে লবণ আমদানি করা হয়। এতে চরম ক্ষতিগ্রস্থ হয় চাষিরা। পাশাপশি দেশে উৎপাদিত লবণ অবিক্রিত অবস্থায় রয়ে যায়। যার ফলে সবধরনের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয় আমাদের চাষীরা।

কক্সবাজার বিসিক আয়োজিত উক্ত সভায় চাষী ও মিল মালিকের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধারা হয়।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM