শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

মহেশখালীতে ধর্ষন মামলার আসামী ধরা ছোঁয়ার বাইরে

মহেশখালীতে ধর্ষন মামলার আসামী ধরা ছোঁয়ার বাইরে

অনলাইন বিজ্ঞাপন

সরওয়ার কামাল, মহেশখালী
কালারমারছড়ায় ভাগিনী ধর্ষন মামলার আসামী বাদশা মিয়া ও তার সহযোগী বশিরের বিরোদ্ধে মামলা হওয়ার ৩মাস পার হলে ও এখনো গ্রেপ্তার না হওয়ায় এলাকাবাসিঁ ও ধর্ষিতা পরিবারের ক্ষোভ প্রকাশ। উল্টো ধর্ষিতা ও তার মা এবং তাদের সহযোগীদের নিয়মিত প্রাণনাশের হুমকি ও মিথ্যা মালায় জড়ানোর হুমকি প্রদান করে আসছে। আইয়ামে জাহেলিয়াকে হার মানিয়েছে ভাগিনীর গর্ভে আপন মামার ৪ মাসের সস্তান। ধর্ষিতার পরিবাবির সুত্রে জানাগেছে, ফকিরাঘোনা এলাকায় ইব্রাহিমের পুত্র বাদশা মিয়া (৩৯) নিজের আপন বড় বোন ছেনুয়ারা বেগমের বড় মেয়ে পারভিন আক্তার (২০) কে অসহায়ত্বের সুযোগে জোরপুর্বক অবৈধ ভাবে কু-কর্ম করে ৪ মাসের অন্তসত্বা করেছে। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে বাদশা মিয়া  ও তার অন্যতম সহযোগী সাবেক মেম্বার বশির ধামাচাপা দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টার পরে ও প্রতিবাদী জনতার সহযোগীতার ধর্ষন মামলা হয়েছে। সেই মামলার ৩ মাস পার হলে ও এখনো পর্যন্ত বাদশা ও বশির ধরা না পড়ায় এলাকার জনগন ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। এলাকায় মদ তৈরীর কারখানা, সন্ত্রাসী কার্যক্রম, সড়ক ডাকাতি চিংড়ীঘের দখল, সহ নানান অপকর্ম ধবজাধারী বশির মেম্বার এখনো পর্যন্ত নির্বিগ্নে অবৈধ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। ধর্ষিতা পারভিন আক্তারের সরাসরি ভিডিও রেকডিং এর মাধ্যমে স্বীকারোক্তি মতে, ৩ মাস বয়সে পিতা মোঃ শরীফ চলে যাওয়ায় অসহায় হওয়ার কারনে নানা ইব্রাহিমের বাড়িতে কাজের মেয়ে হিসাবে দীর্ঘ ২০ বছর ছিল। সেই সুযোগে আপন মামা বাদশা মিয়া প্রায় বছর খানেক পুর্বে থেকে জোরপুর্বক কু-কর্ম করে আসছে তাই ভাগিনী পারভিন আক্তার ৪ মাসের অন্তসত্বা হয়ে পড়েছে। এই রকম ঘটনায় মামলা হওয়ার ৩মাস পার হলে ও এখনো পর্যন্ত ধর্ষিতা বাদশা ও তার সহযোগী বশির গ্রেপ্তার না হওয়ায় ধর্ষিতার পরিবার বিস্ময় প্রকাশ করছেন। এ মতাবস্থায়  প্রশাসন ও সর্বস্থরের জনগনের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করছে। এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ সাইকুল আহম্মেদ ভুইঁয়া জানান, গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM