সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন

টেকনাফে ভূয়া সাংবাদিককে গণধোলায় দিয়েছে জনতা

টেকনাফে ভূয়া সাংবাদিককে গণধোলায় দিয়েছে জনতা

অনলাইন বিজ্ঞাপন

শাহীনশাহ, টেকনাফ 

টেকনাফে এক দোকান থেকে চাঁদা আদায় করতে গিয়ে গণ ধোলাইয়ের শিকার হয়েছে এক ভূয়া সাংবাদিক। পরে পুলিশ প্রশাসনের পরামর্শক্রমে মুচলেকার বিনিময়ে ছেড়ে দিয়েছে জনতা।

২৮ অক্টোবর বিকাল সাড়ে ৪ টায় হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং বাজার সত্তরে ঘটনাটি ঘটেছে । উপস্থিত জনতা ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন ধরে উনচিপ্রাং এলাকায় বিভিন্ন বিষয়কে ইস্যু করে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিল ওই কতিথ সাংবাদিক। তারই ধারাবাহিকতায় উনচিপ্রাং এলাকার প্রবাসির এক স্ত্রীর অনৈতিক বিষয়ে বাধা প্রদান করা নিয়ে আব্দু জব্বারের ছেলে প্রতিবন্ধি আবুল হাশিমের দোকানে গিয়ে ১ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করা হয়। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে নিউজসহ বিভিন্ন মামলার হুমকি দেয়া হয় বলে জানান, ওই দোকানদার। এ নিয়ে হট্টগোল হলে শত শত জনতা তাকে আটক করে গণধোলাই দেয়া দেয়। স্থানীয় সাবেক শিক্ষক মৌলভী মোঃ তাহের ও হাজœী আজিজুর রহমানের ছেলে কামরুল ইসলাম একদল সাংবাদিকদের তার চাঁদা আদায়সহ জনৈক নারীর সাথে অনৈতি কর্মকান্ডের বর্ণনা দেন। কুতুবদিয়া পাড়া ও রইক্ষ্যং এলাকার নুর হোসেন ও আব্দুল বাসেত জানান, সে ৩/৪দিন ধরে ক্যামেরা একটি নিয়ে হুমকি ধমকি দিয়ে গণহারে চাঁদা আদায় করে চলেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়াম্যান ২ রশিদ আহম্মদ বলেন, ২৮ অক্টোবর সকালে রইক্ষ্যং এলাকার কালামিয়ার পরিবারে মাঝে কলহ হলে এই বিষয়কে কেন্দ্র করে কালা মিয়া থেকে চাঁদা হাতিয়ে নিয়ে বসে ওই ভূয়া সাংবাদিক জিয়াউর রহমান জিয়া ওরফে বেলাল। সে বিভিন্ন সময় এসে চাঁদা দাবীর অভিযোগ তাঁর কাছে রয়েছে বলে জানান তিনি। অপ সাংবাদিকতারোধে সংশ্লিষ্টদের জোর হস্তক্ষেপ কামানাও করেন তিনি। টেকনাফ মডেল থানাকে অবহিত করলে স্থানীয়ভাবে সমাধান করার পরামর্শ দেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আতাউর রহমান খোন্দকার। পরে উনচিপ্রাং বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দ ও সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দের হস্তক্ষেপে মুচলেকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

টেকনাফ প্রেসক্লাবের সাবেক সহ সভাপতি ও টেকনাফনিউজ২৪ এর সম্পাদক মুহাম্মদ তাহের নঈম জানান, স্থানীয়রা ওই কথিত সাংবাদিককে আটক করে খবর দিলে বিষয়টি সুরাহা করে দেয়া হয়। খোঁজ খবর ও নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১০ বছর পূর্বে হঠাৎ রহস্যজনক কারণে জিয়াউর রহমান ওরফে বেলাল উদ্দিন নামে এক যুবক হোয়াইক্যং বাজারে চলাফেরা শুরু করে। ৩/৪ বছর পর নিজেকে পশু ডাক্তার পরিচয় দেয়। সে হিসেবে জনশ্রুতি রয়েছে সে একজন গরু ডাক্তার বেলাল। আমতলী এলাকার মোঃ সেলিমের গরুসহ অনেক গুরু ছাগল ভুল চিকিৎসা দিয়ে মেরে ফেলায় বারবার গণধোলাইয়ের শিকার হয়। এতে তার বিরুদ্ধে সংবাদপত্রে প্রতিবেদন প্রকাশ করে সাংবাদিকরা। তার বেপোয়ার গতি বৃদ্ধি পেলে স্থানীয় বৌদ্ধ মন্ধির হামলার নেতৃত্বে দেয় সে।

পুলিশ তাকে হণ্য হয়ে খুঁজে বাহারছড়া গহীণ অরণ্য থেকে তাকে আটক করেছিল পুলিশ। দীর্ঘ প্রায় ১ বছর কারাভোগ করে জামিনে ফিরলে ফের বেপরোয়া হয়ে উঠে। এ ব্যাপারে পুলিশ তার বিষয়ে গুরুত্ব না দিলে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জনকে হুমকি ধমকি দিয়ে চাঁদা আদায় অব্যাহত রাখে। সচেতন সুশীল সমাজের প্রতিনিধির নেতৃত্বে হোয়াইক্যং বাজারে একাধিকবার গণধোলাইয়ের শিকার হয়। তার মধ্যে গত বছর কাটাখালী এলাকার যুব সমাজ, চলতি বছরে জসীম উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে গণধোলাইয়ের শিকার হলে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ীর তৎকালীন এসআই ওমর ফারুক একদল পুলিশ নিযে তাকে উদ্ধার করে। ২২ সেপ্টেম্বর দৈংগ্যাকাটা এলাকার সরকারী কর্মচারী আব্দু রশিদের ছোট ভাইয়ের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করায় দিন দুপুরে হোয়াইক্যং বাজারে প্রকাশ্যে ধোলাইয়ের রেশ শেষ হতে না হতেই ফের জনতা কর্তৃক ওই গণধোলাইয়ের কবলে পড়ে। হোয়াইক্যংয়ের সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা জানান, রহস্যজনক আগত ওই যুবককে মাঝে মধ্যে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ও মাঝে মধ্যে জামায়াত বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে দেখা যায়। তবে তারা বলেন, হোয়াইক্যং কতিপয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের সাথে তার সখ্যতা রযেছে। ওই বহুমূখী চরিত্রধারী যুবক হোয়াইক্যংয়ের এক পল্লী ডাক্তার মেয়েকে বিয়ে করে ঘরজামাই হিসেবে রয়েছে বলে জানা গেছে। এব্যাপারে কথিত সংবাদকর্মী জিয়াউর রহমান জিয়া ওরফে বেলাল নিজেকে স্থানীয় দৈনিক সাগর দেশের হোয়াইক্যং ইউনিয়ন প্রতিনিধি দাবী করেন। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, হামলাটি পরিকল্পিত। তবে পত্রিকাটির নির্বাহী সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাইফী বলেন, এ রকম প্রতিনিধি আমাদের নেই। তবে সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করতেও বলা হয়। টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আতাউর রহমান খোন্দকার জানান, চাঁদা দাবীর বিষয়ে মামলা করা হলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM