শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

আট দেশের ১৭ প্রতিনিধি কক্সবাজারে

আট দেশের ১৭ প্রতিনিধি কক্সবাজারে

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥
বাংলাদেশসহ আটটি দেশের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের ১৭ জন প্রতিনিধি দুই দিনের সফরে এখন কক্সবাজারে অবস্থান করছেন।
বুধবার বিকেলে প্রতিনিধি দলটি ঢাকা থেকে একটি হেলিকপ্টারে কক্সবাজার বিমানবন্দরে আসেন।
সেখান থেকে যান সৈকতের লাবনী পয়েন্টে। সেখানে প্রতিনিধিদলের সদস্যরা সৈকতে সূর্যাস্ত অবলোকন করেন।
বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেননের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলটি সৈকতের লাবনী পয়েন্টে বেশ কিছু সময় কাটান।
এ সময় সফররত জাতিসংঘ বিশ্ব পর্যটন সংস্থার (ইউএনডাব্লিউটিও) মহাসচিব মি. তালেব রিফাই সাংবাদিকদের বলেন, সত্যিই চমৎকার একটি সমুদ্র সৈকত। এটি বেশ ভাল লেগেছে আমার। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ব্যবস্থাপনা নিয়ে আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করব। এই সৈকতের ব্যবস্থাপনা আরো ভাল হবে। আপনারা শীঘ্রই তার দৃশ্যমান কিছু দেখবেন আশা করছি।
বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকত নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে ভুটানের পর্যটন মন্ত্রী মি. লিউনপো নরভো ওয়ানচুক বলেন, আমি এ জীবনে পৃথিবীর অনেক সমুদ্র সৈকত দেখেছি। তার মধ্যে কক্সবাজারের মতো এমন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সৈকত আর দেখিনি। আমি নিশ্চয়ই আমার দেশে কক্সবাজার সৈকতের সৌন্দর্যের কথা জানিয়ে দেব।
এ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে রয়েছেন পর্যটন সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী ও কক্সবাজারের মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক।
চীন, ভারত, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, আফগানিস্তান, নেপাল, ভুটান ও বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা সৈকত পরিদর্শনের পর রাতে কক্সবাজার সাগর পাড়ের একটি হোটেলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।
কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক আলী হোসেন জানান, প্রতিনিধি দলটি বৃহস্পতিবার কক্সবাজারের রামুতে বৌদ্ধ পল্লী এবং বৌদ্ধদের ঐতিহাসিক স্থান, বিহার, মন্দির ঘুরে দেখবেন।

 


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM