বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ১০:২১ অপরাহ্ন

পেকুয়ায় পাহাড়কাটা বন্ধে বনবিভাগের অভিযান

পেকুয়ায় পাহাড়কাটা বন্ধে বনবিভাগের অভিযান

অনলাইন বিজ্ঞাপন

এম দিদারুল করিম পেকুয়া॥

পেকুয়ায় পাহাড়কাটা বন্ধে অভিযান চালিয়েছে বনবিভাগ। গতকাল ২৫অক্টোবর রোববার বিকাল ৩টায় উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের মাঝেরঘোনা এলাকায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।

জানা যায়, স্থানীয় একটি বালিদূস্য চক্র দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ওই এলাকায় পাহাড় কেটে বালি ও মাটি পাঁচার করে আসছিল। এনিয়ে পত্র পত্রিকায় একাধিকবার সচিত্র সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ হলে ইউএনও, পুলিশ ও বনবিভাগ বেশকয়েকবার অভিযান চালায়। অভিযানের জের ধরে কয়েকদিন পাহাড় নিধন যজ্ঞ বন্ধ হলেও সময় সূযোগ বুঝে জড়িতরা ফের হয়ে উঠে সক্রিয়।

সম্প্রতি পেকুয়ার ইউএনও মোঃ মারুফুর রশিদ খান ও পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(প্রশাসন) মোঃ আবদুর রকিবের নেতৃত্বে ওই এলাকায় দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে ঘঠনায় জড়িত বেশকয়জনকে আটক ও অর্থ দন্ড দেয়া ছাড়াও জারুলবুনিয়া ছড়া থেকে উত্তোলিত বালি নিলাম ঘোষনা দিয়ে তার অর্থ সরকারী কোষাগারে জমা দেন। সর্বশেষ গতকাল ফের ওই এলাকায় অব্যাহত পাহাড় কাটার খবর পেয়ে স্থানীয় প্রশাসনের নির্দ্দেশে চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের অধীন পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা বাবু উত্তম কুমার পালের নেতৃত্বে বনবিভাগের একটি প্রতিনিধিদল সরোজমিন ঘঠনাস্থল পরিদর্শনে যান ও অভিযান চালান। এসময় বনবিভাগের লোকজনের উপস্থিতি ঠের পেয়ে জড়িতরা পালিয়ে গেলেও বন বিভাগ ঘঠনাস্থল থেকে পাহাড়কাটায় ব্যবহৃত আলামত হিসাবে বিভিন্ন সরঞ্জামাধি জব্দ করেন।

পেকুয়া বন বিভাগের বারবাকিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা বাবু উত্তম কুমার পাল অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, পাহাড়কাটা, বৃক্ষ নিধন, বনবিভাগের জায়গা জমি জবর দখল, বনজ সম্পদ পাঁটার বন্ধ করতে অভিযানের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM