সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

চকরিয়ায় যুবক হত্যার অভিযোগে স্ত্রী-শ্বাশুড়িসহ আটক-৪

চকরিয়ায় যুবক হত্যার অভিযোগে স্ত্রী-শ্বাশুড়িসহ আটক-৪

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মনজুর আলম, চকরিয়া ঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সকাল সাতটার দিকে উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের রামপুরস্থ উমখালী মাদ্রাসা পাড়ার স্থানীয় লোকজন লাশটি একটি পুকুরে ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। এর পর পুলিশ পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।
পুলিশের সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, উদ্ধারকৃত যুবকের দুই কানের নীচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এতে প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর লাশটি পুকুরে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত যুবকের স্ত্রী মুন্নী আকতার (১৮), তার মা (শ্বাশুড়ি) নুর নাহার বেগম, আরেক রিক্সাচালক পৌরসভার পালাকাটার জামাল উদ্দিন ও চিরিঙ্গা স্টেশন এলাকার মো. রুবেলসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।
নিহত যুবকের নাম শহীদুল ইসলাম (২০)। সে উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের রামপুরস্থ উমখালী মাদ্রাসা পাড়ার মো. কামাল উদ্দিনের পুত্র। পেশায় ওই যুবক রিক্সাচালক বলে এলাকাবাসী জানান।
নিহত যুবকের বাবা কামাল উদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রায় একবছর আগে পৌরসভার কাহারিয়া ঘোনা এলাকার মৃত জসীম উদ্দিনের কন্যা মুন্নি আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় শহীদুল ইসলামের। বিয়ের পর থেকে পৌরসভার হালাকাকারাস্থ একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। গতকাল সোমবার ভোররাত তিনটার দিকে শহীদুলের লাশ নিয়ে স্ত্রী মুন্নি ও শ্বাশুড়ি নুর নাহার বেগম রামপুরস্থ শহীদের বাড়িতে গেলে এলাকাবাসীর কাছে সন্দেহ হয়। এর পর লাশটি পুকুরে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার লোকজন স্ত্রী ও শ্বাশুড়িকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়।
চকরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শাহাদাত হোসেন জানান, খবর পেয়ে গতকাল সোমবার সকাল সাতটার দিকে রিক্সাচালক শহীদুলের লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির সময় দেখা যায় শহীদুলের দুই কানের নীচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কামরুল আজম জানান, পুকুর থেকে শহীদুলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্ত্রী, শ্বাশুড়ি ছাড়াও দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। হত্যাকা-ের ব্যাপারে তাদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।##


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM