বাংলাদেশ, , শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

বিরাণী খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, মা-বাবাও অসুস্থ

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-১০-১৪ ২১:১০:৩৫  

চকরিয়া অফিস ঃ

কক্সবাজারের চকরিয়া ক্যান্ডি ফাস্ট ফুড থেকে নিয়ে যাওয়া বাসি বিরিয়ানী খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়া একই পরিবারের দুই শিশুকন্যা মিলি (৪) ও মাহিয়া (৮) মারা গেছেন। তাদের মা ইয়াছমিন আক্তার বুলু (২৭) ও বাবা মিজানুর রহমান (৩৫) অসুস্থ অবস্থায় চট্ট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারনে মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে । মিলি মারা যায় মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ও তার বড়বোন মাহিয়া গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে চমেক হাসপাতালে মারা যায়।
জানা গেছে, পেকুয়ার বাগগুজারা এলাকার মিজানুর রহমান মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চকরিয়া পৌর শহরের কাজী মার্কেটস্থ কেন্ডি ফাষ্ট ফুড থেকে নিজে ভাত খাওয়ার পর পরিবার সদস্যদের জন্য বিরাণী নিয়ে যায়। রাতে ওই বিরাণী খেয়ে ইয়াছমিন, মাহিয়া ও মিলি অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে মিজানও অসুস্থ হয়ে পড়ে। স্থানীয়রা তাদের চকরিয়ার জমজম প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায় রাত ১০টায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশু মিলিকে মৃত ঘোষণা করেন। শারিরীক অবস্থার অবনতি ঘটায় মাহিয়া, তার মা ও বাবাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে রেফার করেন। গতকাল বুধবার সকালে মাহিয়াও মারা যায়।
এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান, দুই শিশুর মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের পাঠানো হয়েছে।। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ক্যান্ডি ফাষ্ট ফুড ও বিরাণী হাউজের মালিক চকরিয়ার পালাকাটা গ্রামের মুজিবুর রহমান দাবি করেন, মঙ্গলবার তার দোকানে ২৬৪ প্যাকেট বিরানী বিক্রি করা হয়। কিন্তু পেকুয়ার ওই পরিবারটি ছাড়া অন্য কোন ক্রেতার এ ধরণের অসুস্থতার খবর বা অভিযোগ আসেনি। তিনি উল্টো অভিযোগ করেন, একটি কুচক্রি মহল তার ব্যবসায়িক সুনাম ক্ষুন্ন করতেই এ ধরণের তথ্য বিভ্রাট ছড়াচ্ছে।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা