বাংলাদেশ, , শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

টেকনাফ মৌলভীপাড়া ও হারিয়াখালীর মানবপাচারকারী হোতারা অধরা

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-১০-১৩ ২২:০৩:০৩  

নুরুল হোসাইন, টেকনাফ

টেকনাফের মৌলভী পাড়ার হারিয়াখালীর কুখ্যাত আন্তর্জাতিক মানবপাচারকারী জকির, মনজুর ও মালয়েশিয়ার আনোয়ার নামে খ্যাত মোঃ আনোয়ার এখনো অধরা। তারা মালয়েশিয়া থেকে এসে এলাকায় অবস্থান করছেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
তথ্যানুযায়ী টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়ার আনোয়ার প্রকাশ মালয়েশিয়া আনোয়ার এবং সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়াখালী এলাকার জাকির, শাহপরীরদ্বীপ মনজুর আন্তর্জাতিক মানের মানব পাচারকারী সিন্ডিকেটের হোতা। সাগর পথে এরা মালয়েশিয়ায় চোরাইপথ আবিস্কারক। তারা নতুন মিশন নিয়ে এলাকায় অবস্থান করে ফের মানব পাচার কাজে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

যদিও গত ৭ অক্টোবর টেকনাফ মডেল থানার পুলিশের হাতে হারিয়াখালীর রশিদ মিয়া(৪০) এক চিহ্নিত মানব পাচারকারীকে আটক করলে ও অপরাপর চিহ্নিত মানবপাচারকারীরা অধরা অবস্থান রয়েছে। এলাকাবাসীর প্রশ্ন, সকল মানবপাচারকারীদের আইনের আওতায় এনে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্য দাবী জানান। টেকনাফ সীমান্তের হারিয়াখালী মানবপাচারের বদলে এরা ইয়াবার রমরমা বানিজ্য চলছে। সাবরাং নয়াপাড়ার ও হারিয়াখালী নাফ-নদীর উপকূলীয় এলাকা রক্ষা বেড়ীবাঁধের ৪নং সুইচ গেইট দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার বড়ধরনের চালান আসছে। শাহপরীরদ্বীপ জালিয়াপাড়ার উত্তর এবং নয়াপাড়ার দক্ষিনে মধ্যবর্তী হারিয়াখালীর স্থান এবং বধবর্তী জনশুন্য ৪নং সুইচ গেট বরাবর মিয়ানমারের মংডু শহরের অবস্থান।

ইয়াবা পাচারের জন্য ৪নং সুইচ গেট এবং হারিয়াখালী এলাকা একটি নিরাপদ স্থান হিসাবে পরিচিত। তাই সীমান্ত রক্ষীর চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিনিয়ত ইয়াবার চালান আসছে।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা