বাংলাদেশ, , শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত কক্সবাজার ভেন্যু

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-১০-১৩ ২১:৫৭:২৩  

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপকে সামনে রেখে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রায় প্রস্তুত। এখন চলছে শেষ মুহুর্তের কাজ। পুরো স্টেডিয়ামের কাজেও সন্তুষ্ট পরিদর্শনে আসা বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া। আর বিসিবির প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমদ বলছে, কক্সবাজারে বিশ্বকাপের ১৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে তাই এ ভেন্যুর গুরুত্ব অনেক বেশি।
বাংলাদেশে বড়দের বিশ্বকাপ সফলভাবে আয়োজনের পর এবার বসছে অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ আসর। আর এই আসরের ১৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। তাই জোরেশোরে চলছে শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি। ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে ৩টি গ্রাউন্ডস, ১২টি মূল পিচ ও ২৪ টি প্র্যাকটিস পিচ।
মঙ্গলবার দুপুরে বিসিবির প্রতিনিধি দল বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত ঘেঁষা দৃষ্টিনন্দন কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ভেন্যু পরিদর্শন করেন বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া, ন্যাশনাল কিউরেটর গাভানী সিলভা ও প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ। তারা ৩টি গ্রাউন্ডস, ৩৬টি পিচ ও স্টেডিয়ামের পুরো এলাকা ঘুরে দেখেন। আর কাজের অগ্রগতি দেখে খুশি কক্সবাজার পরিদর্শনে আসা বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া।
তিনি বলেন, অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের কয়েকটি ভেন্যু নির্ধারিত হয়েছে। সেই ভেন্যুগুলো পরিদর্শন করা হচ্ছে। সিলেট স্টেডিয়াম পরিদর্শন শেষে এখন কক্সবাজার স্টেডিয়াম পরিদর্শন করা হয়েছে। যেভাবে কাজ চলছে এতে আমরা খুবই খুশি। এখানে যে বিশ্বকাপের খেলা যে হতে যাচ্ছে তা কক্সবাজারবাসী কিংবা পুরো বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের জন্য আনন্দের বিষয়।
বাকি কাজ বিশ্বকাপের আগে শেষ হবে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে হানিফ ভূঁইয়া বলেন, বৃষ্টি কারণে কিছু কাজ বাকি রয়েছে, তাও খুব শীঘ্রই শেষ হবে। আশা করি, স্টেডিয়ামের সৌন্দর্য্য বন্ধনের কাজ করা হচ্ছে। কারণ এখানে অনেক পর্যটক ও বিদেশি আগমন ঘটবে।
এদিকে নিরাপত্তা বিষয়ে হানিফ ভূঁইয়া বলেন, নিরাপত্তার ব্যাপারে বিসিবি এবং বাংলাদেশ সরকার প্রস্তুত রয়েছে। এতে আগত দেশগুলোর নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তা করার কিছুই নেই।
বিসিবির প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমদ বলেন, কক্সবাজারে বিশ্বকাপের ১৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে, তাই এ ভেন্যু অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। পর্যটন নগরী হিসেবে কক্সবাজারবাসীর স্বপ্ন এখানে একটি আন্তর্জাতিক মানের একটি পূর্ণাঙ্গ স্টেডিয়াম নির্মাণের। তাই, সময়ের সাথে সাথে বিশ্বের একটি অন্যতম স্টেডিয়ামে পরিণত হবে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট।
বিসিবির দেয়া তথ্য মতে, কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম হচ্ছে দেশে সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম। যেখানে রয়েছে ৩৬টি পিচ।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা