বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

রাবিতে ছিনতাইকালে ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ২

রাবিতে ছিনতাইকালে ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ২

অনলাইন বিজ্ঞাপন

আলোকিত কক্সবাজার ডেক্স ॥
দিনে-দুপুরে ছিনতাইকালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক জনি আহম্মেদসহ দুজনকে ধরে মারধর করে পুলিশে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এ সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ছিনতাইকারীদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ক্যাম্পাসের সিনেট ভবন চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আটককৃত ওই ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।
ছিনতাইকারী জনি আহম্মেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন সায়েন্স অ্যান্ড লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের স্নাকোত্তর পর্বের শিক্ষার্থী। তাঁর বাড়ি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বুধপাড়া এলাকায়। অপর ছিনতাইকারী সালমান শরীফ নগরীর কেশবপুর এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে বলে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবন চত্বরে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন বেশ কিছু শিক্ষার্থী। ছিনতাইকারিরা মোটরসাইকেলযোগে এসে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের দুই শিক্ষার্থী বাদে অন্য শিক্ষার্থীদের সেখান থেকে উঠিয়ে দেয়। এর পর তাঁরা নিজেদের ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে ওই দুই শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ও তাদের পরিচয়পত্র দেখতে চায়। এক পর্যায়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে দুই শিক্ষার্থীর কাছে থাকা দুটি মোবাইল ফোন ও ২ হাজার ৭০০ টাকা কেড়ে নেয় ছিনতাইকারীরা। এর পর ছিনতাইকারীরা সেখান থেকে চলে যেতে উদ্যত হলে এক ভুক্তভোগী পাশের সাবাস বাংলাদেশ মাঠে খেলতে থাকা শিক্ষার্থীদের খবর দেয়। খবর পেয়ে সব শিক্ষার্থীরা মিলে ওই দুই ছিনতাইকারীকে ধরে মারধর করে। বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই দুই ছিনতাইকারীকে ধরে গাড়িতে তোলে। এ সময় সেখানে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা ছিনতাইকারীদেরকে মারতে গেলে একজনের লাঠির বাড়ি পুলিশের গাড়িতে লাগে। তখন চার-পাঁচজন পুলিশ সদস্য বাংলা বিভাগের রফিক সানি নামের এক শিক্ষার্থীকে বেধরক মারধর করে। এ সময় কয়েকজন পুলিশ সদস্য এক শিক্ষার্থীকে বেধরক মারধর করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়। সে সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ছিনতাইকারীদের মোটরসাইকেলটিতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। পরে শিক্ষার্থীদের মোবাইল ও টাকা ফিরিয়ে দেয় ছিনতাইকারীরা।
এদিকে এ ঘটনার পর আজ সন্ধ্যা ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান রানা ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খালেদ হাসান বিপ্লব স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক জনি আহম্মেদকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাংগঠনিক সব ধরনের কার্যক্রম থেকে তাঁকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তারিকুল হাসান বলেন, ঘটনার পর দুজনকে পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে। এখন তাঁরাই আইনগত ব্যবস্থা নেবে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নগরের মতিহার থানার ওসি হুমায়ূন কবীর বলেন, দুই ছিনতাইকারীদের আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Desing & Developed BY MONTAKIM