বাংলাদেশ, , বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

পাকিস্তানের নাটকীয় হার

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-১০-০৩ ২৩:২২:৫০  

স্পোর্টস ডেক্স॥
ক্রিকেট গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা’—ব্যবহারে ক্লিশে হলেও এ বাক্যটাই যেন সবচেয়ে বেশি খাটে আজকের ম্যাচে। কয়েক দফা নাটকের পর অন্তিম মুহূর্তে প্রকৃতির বাগড়া। আর তাতে বড় উপকার হলো জিম্বাবুয়ের। হারারেতে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ডিএল পদ্ধতিতে ৫ রানে হারল পাকিস্তান।২৭৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা পাকিস্তান ৭৬ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল একটা সময়। ৩০ ওভার শেষেও রানের গড় ছিল ৩.৮৩। চলছিল টুক-টুক ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী। অধিনায়ক আজহার আলী, বিলাল আসিফ ও আসাদ শফিক-তিনজন মিলে করেছেন দুই রান! চতুর্থ উইকেটে দলকে কক্ষপথে ফেরানোর চেষ্টা করছিলেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিক। কিন্তু হাফিজ ২৭ রানে রান আউটে ফিরে গেলে আরও বিপদে পড়ে যায় পাকিস্তান। তবে মালিক থিতু হয়ে গিয়েছিলেন উইকেটে।

ভীষণ চাপের মধ্যে আমির ইয়ামিনের সঙ্গে সপ্তম উইকেটে ১১১ ও ইয়াসির শাহর সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন নবম উইকেটে ৬৩ রান তোলেন মালিক। মালিকে সওয়ার হয়ে ক্রমেই যখন আশার আলো দেখতে পাচ্ছিল পাকিস্তান, তখনই প্রকৃতির বাগড়া। আলোকস্বল্পতায় একপর্যায়ে খেলাই গেল থেমে। ডিএল পদ্ধতিতে ম্যাচ জিতে গেল জিম্বাবুয়ে। শুরুতে ধীর গতিতে রান তোলার এতটা খেসারত দিতে হবে, ভাবতে পারেনি পাকিস্তান। দলের জয় তো বটেই, নিজের সেঞ্চুরিটাও ফসকে গেল ৯৬ রানে অপরাজিত থাকা মালিকের।
টসে জিতে জিম্বাবুয়েকে ব্যাট করতে পাঠান পাকিস্তানি অধিনায়ক আজহার। খুব একটা উইকেট বিলিয়ে না দিলেও পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শুরুর দিকে রান তুলতে বেগই পেতে হয়েছে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের। ৩৫ ওভারে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ছিল ৩ উইকেটে ১৫৩। বাকি ৯০ বলে এসেছে ১২৩ রান। স্লগ ওভার দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছেন জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যানরা। শেষ ৪২ বলেই এসেছে ৭০ রান।

ব্রায়ান চারি-চামু চিভাভার ৯১ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি ভালো ভিত্তি দিলেও জিম্বাবুয়েকে চ্যালেঞ্জিং স্কোর দেয় মূলত চিগুম্বুরা-সিকান্দার রাজার পঞ্চম উইকেট জুটি। ৩৬ বলে ৬২ রান তোলে এ জুটি। ওয়াহাব রিয়াজের বলে ফেরার আগে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯০ এসেছে চিভাভার ব্যাট থেকে। অধিনায়ক চিগুম্বুরা করেছেন ৫৫ বলে ৬৭ রান। ২১ বলে ৩২ করেছেন রাজা। পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নিয়েছেন রিয়াজ।
এ জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-১ সমতায় ফিরেছে জিম্বাবুয়ে।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা