বাংলাদেশ, , শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সন্তান ও নতুন সহোদর

আলোকিত কক্সবাজার ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৫-১০-০৩ ১৮:৪৪:২০  

আলোকিত কক্সবাজার ডেক্স॥
একটি সন্তানের চেয়ে দু’টির সাথে মানিয়ে নেওয়া আরও বেশি কঠিন। প্রথম প্রথম এটা বে জটিল হতে পারে, বিশেষ করে যদি আপনার প্রথম সন্তান অল্প বয়সী হয়। আপনার জন্য কাজের পরিমাণ দ্বিগুণের চেয়ে বেশি হয়ে যায় আর সময় ও মনোযোগের ভাগাভাগিটা ঝামেলাযুক্ত হতে পারে। তবে একটি শিশুকে দেখা-শোনা করার অভিজ্ঞতা এবং সম্ভবত অধিকতর আত্মবিশ্বাস আপনার রয়েছে, যা আপনাকে    সাহায্য করবে।
অধিকতর বড় পরিবার হিসেবে ও একের অধিক শিশুর দেখাশোনার জন্য মানিয়ে নিতে কিছুটা সময় লাগবে। আপনার বড় সন্তানকেও (বা সন্তানদেরকে) মানিয়ে নিতে হবে। কারো কারো জন্য বিষয়টি কঠিন। আপনি হয়তো দেখবেন যে আপনার বড় শিশুটি ঈর্ষাপরায়ণ হয়ে উঠছে বা মনোযোগ আকর্ষণ করতে চাইছে। এক্ষেত্রে তাদের প্রত্যেকের সাথে এককভাবে সময় কাটানোটা জরুরী।
এছাড়া নিম্নলিখিত পরামর্শগুলো সহায়ক হতে পারে-
lআগের রুটিন ও কাজ কর্ম বজায় রাখার চেষ্টা করুন। খেলার মাঠে যাওয়া, বন্ধুদের সাথে দেখা করা ও রাতে শোয়ার সময় গল্প বলা ইত্যাদি কাজগুলো করা প্রথম কয়েক সপ্তাহে কষ্টকর হতে পারে। তবে প্রতিষ্ঠিত রুটিনের প্রতি অনুগত থাকাটা আপনার আগের সন্তানকে আশ্বস্ত হতে সাহায্য করবে।
lএটা আপনাকে বুঝতে হবে যে আপনার বড় শিশুটি নতুন শিশুটিকে প্রথম প্রথম ভালো নাও বাসতে পারে। তারা হয়ত আপনার মতো করে বিষয়টি অনুভব করবেনা। যদি তারা আপনার আনন্দকে ভাগ করে নেয় তো ভালো তবে তা আশা করবেন না।
lঅতিরিক্ত আবদারের সাথে মানিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হোন। আপনার বড় শিশুটি হয়তো আগের চেয়ে বেশি মনোযোগ চাইবে। এক্ষেত্রে দাদা-দাদি, নানা-নানি হয়ত সাহায্য করতে পারবে। তবে তারপরও আপনার শিশুর আপনার সাথে এককভাবে সময় কাটানোর প্রয়োজন রয়েছে যাতে করে সে এটা না মনে করে যে, তাকে ভুলে যাওয়া হয়েছে।
lআপনার আগে সন্তানকে আগ্রহী হতে উত্সাহিত করুন। বাচ্চারা সব সময় শিশুদেরকে পছন্দ করেনা, তবে তাদের কাছে নতুন শিশুকে আকর্ষণীয় লাগতে পারে। আপনার বড় সন্তানেরা শৈশবে কেমন ছিলো এবং কি কি করতো তাদেরকে সেসব বলার মাধ্যমে এই বিষয়টির প্রতি আগ্রহী করে তুলতে পারেন। তাদের পুরনো খেলনাগুলো বের করুন এবং ছবি দেখান।
lশিশুকে খাওয়ানোর সময় তাদের মনোযোগ অন্য দিকে সরিয়ে দিন। আপনি যখন আপনার শিশুকে খাওয়ান তখন আপনার আগের সন্তানটি পরিত্যক্ত ও ঈর্ষান্বিত বোধ করে। তাদের খুশি করার জন্য কিছু খুঁজে বের করুন বা খাওয়ানোর সময়টায় তাদের সাথে গল্প করার বা কোন গল্প বলার একটি সুযোগ হিসেবে ব্যবহার করুন।
lতাদের শিশুসুলভ আচরণে ধৈর্য ধারণ করুন। আপনার আগের শিশুটি হয়তো বোতল চাইতে পারে, প্যান্ট ভেজাতে শুরু করবে বা কোলে নিতে বলবে। এটা সম্পূর্ণ স্বাভাবিক আচরণ, তাই চেষ্টা করুন যাতে এটিতে আপনি বিরক্ত না হোন এবং প্রত্যেক সময় তাকে না বলবেন না।
lকিছুটা ঈর্ষা ও অসন্তোষ প্রত্যাষা করুন। এরকমটা ঘটা প্রায় নিশ্চিত। আপনার সঙ্গী, দাদা-দাদী,
নানা-নানী বা কোন বন্ধুর
সাহায্য চান যাতে আপনি
নিজেকে প্রতিটি শিশুর সাথে একা সময় দিতে পারেন। এটি আপনাকে আপনার উপর আরোপিত দাবিসমূহের ভারসাম্য রাখতে
সাহায্য করবে।
lআপনার সন্তানকে শিশুটির সাথে জড়িত হতে উত্সাহিত করুন। শিশুর দেখাশোনাকে একটি মজার খেলায় পরিণত করুন এবং আপনার সন্তানকে শিশুটির সাথে কথা বলতে অনুপ্রাণিত করুন।

পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
                                       
ফেইসবুকে আমরা