শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

র‌্যবের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ আটক-২

ওয়াহিদ রুবেল:
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩৯ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারের টেকনাফ এবং রামুতে পৃথক অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও বিদেশী মদসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা। এ সময় মাদক বিক্রির প্রায় পৌনে ৫ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।  বৃহস্পতিবার রাতে টেকনাফের হ্নীলা এবং রামুর খুনিয়াপালং এলাকায় পৃথক এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, টেকনাফের হ্নীলার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম সিকদার পাড়া এলাকার মৃত সৈয়দ হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ (২১) এবং খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ বাদশা মিয়ার ছেলে মোহাম্মদ আমির হোসেন (৩৩)।

র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারি পরিচালক (মিডিয়া) আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী’র পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক কারবারি হ্নীলার পশ্চিম সিকদারপাড়া নামক স্থানে ভাই ভাই স্টোর নামক একটি দোকানে মদ ও বিয়ার বিক্রি উদ্দেশ্যে মজুদ রাখা হয়েছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে রাত অনুমান এগারোটার দিকে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার সময় শহিদুল্লাকে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যমতে দোকানে তল্লাশি চালিয়ে ৪৫বোতল বিদেশী মদ এবং ৩৪ ক্যান বিদেশি বিয়ার উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত শহীদুল্লাহ জানায় যে, জব্দকৃত মাদক বিক্রির উদ্দেশ্যে নিজ হেফাজতে রেখেছিল। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে র‌্যাবের অপর একটি অভিযানে রামু উপজেলার খুনিয়াপালং তুলাবাগান এলাকায থেকে আট হাজার পিস ইয়াবা, যৌন উত্তেজক সিরাপ এবং মাদক বিক্রির নগদ ৪ লাখ ৭৯ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় আটক করা হয়েছে মাদক ব্যবসায়ী আমির হোসেন (৩৩)কে।

র‌্যাবের পক্ষে তা জানানো হয়েছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে যে, রামু খুনিয়াপালং ইউনিয়নের তুলাবাগানের স্টেশনে মোহাম্মদ আমির হোসেনের মুদির দোকানের ভিতর ইয়াবা বিক্রির উদ্দেশ্যে মজুদ রাখা হয়েছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে রাত সাড়ে আটটার দিকে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মুদির দোকানদার আমির হোসেন পালানোর চেষ্টাকালে তাকে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্য মতে বিস্কুট রাখার তাকে রাখা একটি শপিং ব্যাগ থেকে ৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। একই সাথে ৩০টি যৌন উত্তেজক সিরাপ ফাইটন ইউনানী ঔষুধ, ১২টি যৌন উত্তেজক সিরাজ ‘লাভ ফর এভার’ এনার্জি ড্রিংকস এবং মাদক বিক্রির ৪ লাখ ৭৯ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আমির হোসেন জানান স্বীকার করে যে, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ও যৌন উত্তেজক সিরাপ বিক্রি করে আসছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা করে রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102