মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০২:২০ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

মডেলকে যৌন হয়রানি করেন ট্রাম্প!

ডেস্ক নিউজ:
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৮ বার পড়া হয়েছে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নারীদের অভিযোগের তালিকায় আরও একটি যোগ হলো। যুক্তরাষ্ট্রের মডেল অ্যামি ডরিস অভিযোগ করেছেন, ১৯৯৭ সালে প্রেমিকের সঙ্গে ইউএস ওপেন দেখতে গিয়ে তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হন। তখন ডরিস ছিলেন ২৪ বছরের তরুণী। এত বছর পরেও সেই ঘটনা তিনি ভুলতে পারেননি। তিনি রীতিমতো ‘অসুস্থ’ ও ‘নিপীড়িত’ বোধ করছেন।

দ্য গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে অ্যামি ডরিস বলেন, ১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর প্রেমিক জেসন বিনের সুবাদে ট্রাম্পের সঙ্গে তার দেখা হয়। ট্রাম্পের আমন্ত্রণে ভিআইপি বক্সে ইউএস ওপেনের ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলেন দুজনে। ম্যাচ চলাকালীন সময়ে ভিআইপি বক্সের বাথরুমের বাইরে ট্রাম্প তাকে যৌন হয়রানি করেছিলেন। এসময় ট্রাম্প তার হাত চেপে ধরে জোর করে চুমু খেয়েছিলেন। হাত চেপে ধরায় ডরিস নড়তেও পারছিলেন না।

ডরিস বলেন, ‘ তিনি জোর করে আমাকে চুমু খাচ্ছিল এবং আমি তাকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিলাম। আমি জানি না এ ধরনের পরিস্থিতির জন্য কী শব্দ ব্যবহার করা হয় কিন্তু আমি কামড় দিয়ে তাকে থামানোর চেষ্টা করেছি। আমার ধারণা সেও ব্যথা পেয়েছিল। এতদিন আমি মানসিক যন্ত্রণায় ভূগেছি। আমার এখন মনে হচ্ছে, মেয়েদের বয়স ১৩ হতে যাচ্ছে এবং তাদের জানানো দরকার, কাউকে কখনো জোর করে কিছু করতে দেওয়াটা ঠিক নয়। আমি চাই তাদের কাছে আদর্শ হতে। আমি চাই তারা জানুক, আমি চুপ থাকিনি; অন্যায় করেছে, এমন একজনের বিরুদ্ধে আমি মুখ খুলেছি।’

ট্রাম্প অবশ্য বরাবরের মতোই এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তবে ডরিস ঘটনার প্রমাণ হিসেবে ইউএস ওপেনের সেদিনের টিকিট ও ট্রাম্পের সঙ্গে তোলা ছয়টি ছবি দেখিয়েছেন। ডরিস সেই ঘটনা নিয়ে আরও বলেন, ‘আমি চেঁচিয়ে বলছিলাম, না, সরুন, না, দয়া করে থামুন। কিন্তু সে আমার ওপর জোর খাটিয়ে যাচ্ছিল। আপনি যেই হোন না কেন, কেউ যখন না বলে তার মানে না। কিন্তু আমার ক্ষেত্রে সেটা কাজ করেনি। এটা যথেষ্ট হয়নি। আমি ভয়ংকর ধাক্কা খেয়েছিলাম। অবশ্যই নিপীড়িত মনে হয়েছিল। কিন্তু তখনো বুঝে উঠতে পারিনি কী ঘটছে। আমি দ্রুত ফিরে (ভিআইপি বক্সে) আবার সবার সঙ্গে কথা বলে সহজ হওয়ার চেষ্টা করেছি।’

-সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান/কালেরকণ্ঠ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102