শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪০ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

মগনামাায় ওয়াসিম আতংকে ভোটার; তোরণ অপসারণের নির্দেশ

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া
  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৫৬ বার পড়া হয়েছে

আসন্ন ২৮ নভেম্বর বহুল প্রত্যাশিত পেকুয়া উপজেলার সন্ত্রাস কবলিত মগনামা ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্টিত হচ্ছে। উক্ত নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যেই চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে ইউনিয়নের প্রত্যন্ত জনপদ। তবে প্রভাবশালী এক প্রার্থীর কারণে সাধারন ভোটাররা আতংকেও রয়েছে।

এদিকে প্রভাবশালী ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম ও তার লোকজন বিভিন্ন পথসভায় তার প্রতিদ্বন্ধী অপর প্রার্থীদের অত্যন্ত কুৎসিত ভাষায় আক্রমণ করে বক্তব্য বিবৃতি দিয়ে এলাকায় ভোটের পরিবেশ বিনষ্টের অপচেষ্টা করছেন মর্মে অভিযোগ উঠেছে। অবৈধ টাকার প্রভাবে শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম নির্বাচনী তফশীল ঘোষনার পর থেকে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লংঘন করে মগনামার ৯টি ওয়াড়র্ের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ৩০টির অধিক নির্বাচনী অফিস ও ৩৫ টির অধিক নির্বাচনী তোরণ স্থাপন করেছে। ওয়াসিমের এসব অবৈধ নির্বাচনী অফিস ও গেইট অপসারণ চেয়ে মগনামার জনপ্রিয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো: ইউনুচ চৌধুরী গত ২০ নভেম্বর পেকুয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও মগনামা ইউনিয়নের রিটানিং কর্মকর্তা মো: রেজাউল করিমের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউনুচ চৌধুরীর লিখিত অভিযোগ পেয়েই রিটার্নিং কর্মকর্তা রেজাউল করিম মগনামার চেয়ারম্যান প্রার্থী শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমকে ২১ নভেম্বর একটি শোকজ নোটিশ প্রেরণ করেছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত শোকজ নোটিশে উল্লেখ করেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচন-২০২১ এ শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। ইউনিয়ন পরিষদ (নির্বাচনী আচরণ) বিধিমালা-২০১৬ এর ১২ (২) উপবিধি মোতাবেক কোন চেয়ারম্যান প্রার্থী তার নির্বাচনী এলাকায় ৩টির অধিক নির্বাচনী অফিস স্থাপন করিতে পারিবে না এবং উক্ত বিধির ১৬ (ক) উপবিধি মোতাবেক নির্বাচনী এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণায় কোন গেইট, তোরণ নির্মাণ করিতে পারিবে না। কিন্তু শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম তার নির্বাচনী এলাকায় নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা ও উপবিধি লংঘন করে ৩০টির অধিক নির্বাচনী অফিস ও ৩৫টির অধিক নির্বাচনী তোরণ স্থাপন করেছেন। যাহা উপজেলা নির্বাচন অফিসার সরেজমিনে সত্যতা পেয়েছেন।
মগনামার রিটার্নিং অফিসার আগামাী ২৪ ঘন্টার মধ্যে শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম কর্তৃক স্থাপিত (৩টির অধিক) নির্বাচনী অফিস ও তোরণ অপসারণ করে মগনামার রিটার্নিং কর্মকর্তাকে অবহিত এবং ভবিষ্যতে এহেন কার্যাকলাপ থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশনা জারি করেছেন।

এদিকে নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, ভোটারদের মাঝে ততই আতংক সৃষ্টি হচ্ছে। স্থানীয় ভোটরদের প্রভাবশালী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা হুমকি দিচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় ইউনুচ চৌধুরীর প্রচার-প্রচারণায় বাধার সৃষ্টি করছে ওয়াসিমের লোকজন।

পেকুয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও মগনামার রিটার্নিং অফিসার রেজাউল করিম জানান, মগনামাসহ অন্যান্য ইউনিয়নে সুষ্টু নির্বাচন করতে নির্বাচন কমিশন বদ্ধ পরিকর। কোন অবস্থাতেই কেন্দ্র দখল, জাল ভোট, প্রভাব বিস্তারসহ ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোর চেষ্টা করা হলে প্রশাসন জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

নির্বাচন আগামী ১১ই নভেম্বর

আপনার ভোট হউক নিলুফার ইয়াছমিনের পক্ষে
নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102