বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৫:০১ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

নোয়াখালীতে নারী বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় আটক-৪

ডেস্ক নিউজঃ
  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৭ বার পড়া হয়েছে

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে রাতের আঁধারে ঘরে ঢুকে এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও সেই নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়ানোর ঘটনায় এখন পর্যন্ত চার জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার চার জন হলেন— মামলার প্রধান আসামি বাদল, দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ার, রহমত উল্লাহ ও আবদুর রহিম (২২)। এদের মধ্যে আজ সোমবার বাদলকে ঢাকা থেকে ও দেলোয়ারকে অস্ত্রসহ নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম। আর রহমত উল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বেগমগঞ্জ থেকে। তার গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জের বেগমগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাজাহান শেখ।এর আগে, এ ঘটনায় গতকাল সন্ধ্যায় আবদুর রহিমকে গ্রেপ্তার করা হয়। রহিমের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ চৌধুরী।

গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের বড় খালপাড় এলাকায় ঘরে ঢুকে ওই নারীকে অপবাদ দিয়ে নির্যাতন করেছে একদল যুবক। সেসময় ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারণ করেন তারা। ঘটনার এক মাস দুই দিন পর গতকাল দুপুরে ওই নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এই ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে গতকাল রাতে বেগমগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় নয় জনের নাম এবং আরও আট থেকে নয় জনকে অজ্ঞাত উল্লেখ করে আসামি করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একলাশপুর ইউনিয়নের অনন্তপুর ও জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের একাধিক ব্যক্তি গতকাল জানান, ওই নারীর বিয়ে হয় বছর তিনেক আগে। স্বামী তাকে রেখে অন্যত্র দ্বিতীয় বিয়ে করেন। দীর্ঘদিন তার সঙ্গে স্বামীর কোনো যোগাযোগ ছিল না। গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে স্বামী ওই নারীর ঘরে ঢুকেন। স্থানীয় মাদক চোরাকারবারি বাহিনীর প্রধান দেলোয়ার এ ঘটনা দেখে তার লোকজন নিয়ে রাত ১০টার দিকে ওই ঘরে প্রবেশ করে নারীকে অপবাদ দিয়ে তাকে মারধর শুরু করেন। একপর্যায়ে তাকে পিটিয়ে বিবস্ত্র করে তার ভিডিও ধারণ করেন।

ওই ভিডিও ফুটেজ দেখে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘটনার ধিক্কার জানিয়ে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

গতকাল স্থানীয় ইউনিয়ন পিরিষদের চেয়ারম্যানপ্রার্থী সাইদুর রহমান দিপু বলেন, ‘মাদক চোরাকারবারি দেলোয়ার বাহিনী এই ঘটনা ঘটিয়েছে।’ তিনি নির্যাতনকারী দেলোয়ার ও তার বাহিনীর লোকজনের গ্রেপ্তার দাবি করে বলেন, ‘কোনো সভ্যসমাজে এরকম ঘটনা ঘটতে পারে না।’

স্থানীয় একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগ গতকাল দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘ঘটনার পর ভুক্তভোগী নারী আমার কাছে এসেছিলেন। তবে কারা তাকে নির্যাতন করেছেন, তা তিনি বলেননি। ঘটনার পর থেকে তিনি ও তার পরিবার বাড়িতে বসবাস করে না।’ সূত্র- দ্যা ডেইলিস্টার।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102