বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

ডিসি অফিসের কর্মীচারির হামলায় বিচার প্রার্থী আহত!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২২৪ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারি উত্তম কুমার দে’র হামলায় এক বিচার প্রার্থী আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ রবিবার (২ জানুয়ারি) দুপুর বারোটার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট (এডিএম) এজলাসের সামনে করিডোরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলার ঘটনার প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী বিচার প্রার্থী অক্ষয় কুমার দে ডালিম(৩২)।

তিনি কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল সাম্পান ঘাট এলাকার কার্তিক চন্দ্র দে’র ছেলে।

হামলায় আহত বিচার প্রার্থী অক্ষয় কুমার দে ডালিম জানান, আজ (রবিবার) নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে তার পিতার দায়ের করা মিচ-২৯/২০২০ এর ধার্য্য তারিখ ছিল। ম্যাজিষ্ট্রেট বসার অপেক্ষায় এজলাসের সামনে করিডোরে ফাইল নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন তিনি। সে সময় ডিসি অফিসের কর্মচারি উত্তম কুমার দে তাকে উপর্যুপরি কিল ঘুষি মারতে থাকে এবং অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় আমার ভাই শিক্ষানবীশ আইনজীবী পরিধন কান্তি দে এবং অন্যন্য বিচার প্রার্থী লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় অভিযুক্ত কর্মচারি প্রকাশ্যে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে হত্যার হুমকি ধমকি দেয়।

ভোক্তভূগীর দাবি, ব্যক্তিগত কোন বিরোধ না থাকলেও বিনা কারণে তিনি এ হামলা চালিয়েছেন। আমি ধারণা করছি আমাদের প্রতিপক্ষের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে চাকুরির প্রভাব দেখিয়ে ভাড়াটিয়া হিসেবে এ হামলা করেছেন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসকের তৃতীয় তলায় থাকা সিসি টিভি ক্যামরায় ধারনকৃত ফুটেজ দেখলে সত্যতা পাওয়া যাবে। তিনি ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিগত ৫/৬ মাস পূ্র্বে নৈশ প্রহরী পদে চাকরিতে যোগদান করেন উত্তম কুমার দে। এরপর থেকে বিভিন্ন দপ্তরে ডিসি অফিসের স্টাফ পরিচয় দিয়ে চাকরির বিধিমালা লঙ্গন করে তদবির শুরু করেন তিনি। গ্রামের বিভিন্ন অসহায় লোকজনকে মামলা তাদের পক্ষে রায় করিয়ে দিবে, মামলায় পক্ষে প্রতিবেদন এনে দিবে বলে ঘুষ নিয়ে মানুষকে হয়রানী করে আসছে ।

এ বিষয়ে ডিসি অফিসের নাজির স্বপন পালকে জানান ঘটনা শুনেছি। তদন্তপূর্বক অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন।

জানতে চাইলে অভিযুক্ত উত্তম কুমার দে বলেন, ধর্মীয় একটি অনুষ্ঠানে ডালিমের গায়ে ধাক্কা খেয়েছিলাম। আমার মনে হয়েছিল সে আমাকে ইচ্ছে করে করেছিল। আজ সুযোগ পেয়ে আমি তার প্রতিশোধ নিয়েছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এজলাসের সামনে এ ধরনের ঘটনা করা আমার ভুল হয়েছে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আমিন আল পারভেজ ঘটনা সম্পর্কে তিনি অবগত নন জানিয়েছেন। তবে অভিযুক্তরা আমার সাথে দেখা করলে তথ্য যাচাই করে ব্যবস্তা নেয়া হবে।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102