বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

খুরুশকুলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জমি দখল নিতে হামলাঃ আহত-৫

ওয়াহিদ রুবেলঃ
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ১১ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৫০ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জমি দখল করতে গভীর রাতে এক পরিবারের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এ সময় টিনের ঘেরা কেটে ভাঙ্গার পাশাপাশি একটি গোয়াল ঘরেও আগুন ধরিয়ে দেয় হামলাকারিরা। হামলায় বৃদ্ধ স্বামী-স্ত্রীসহ একই পরিবারের ৫ জন আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। জাতীয় সেবা-ডিজিট ৯৯৯-এ কল করার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। উদ্ধারের পর আহতদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করায় পুলিশ।

গত ৬ নভেম্বার দিনগত রাতে এ হামলার ঘটনায় তদন্ত শেষে আইন ভঙ্গকারিদের বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস।

আহতরা হলেন, কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুলের উত্তর রাস্তারপাড়া এলাকার মমতাজ আহমদ (৬০), তার স্ত্রী শবে মেহরাজ (৫০), মেয়ে সাকেরা বেগম (৩০), ফারহানা (১৮) ও কুলসুমা (৩০)।

আহত মমতাজ জানান, তিনি ১৯৮৪ সালে জনৈক মাহমুদুর রহমান এবং হামিদুর রহমানের কাছ থেকে ১৬ শতক জমি ক্রয় করে সেখানে বসতি গড়ে বাস করে আসছেন। দীর্ঘ ৩৬ বছর কোন সমস্যা না হলেও সম্প্রতি একই এলাকার মৃত নজির আহমদের ছেলে মাহমুদুল হক তাদের বসতভিটায় তার জমি রয়েছে বলে ভিটার একাংশ দখল নিতে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে বিচার দেয়া হয়।

সেখানে উত্তাপিত কাগজে দেখতে পায়, জনৈক আব্দু শুক্কুর নামে এক ব্যাক্তির কাছ থেকে মাহমুদুল হক ৪ শতক নাল জমি ক্রয় করেন। যা তারা ১৭০০ খতিয়ান থেকে ৩১৮০ খতিয়ান সৃজিত করেন। এতে আমার ভিটার দাগও উল্লেখ করায় বিজ্ঞ আদালতে নামজারি খতিয়ান সংশোধনের মামলাও দায়ের করি (৪৯২/১৫)। মামলাটি চলমান রয়েছে। এরপরও তারা আমাদের জমি দখল নিতে কয়েকবার হামলা চালায়। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে উক্ত জমিতে স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখতে ১৪৪ ধারা জারির আবেদন করলে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আমার জমির উপর ১৪৪ ধারা আমলে নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশনা দেন।

তিনি আরো উল্লেখ করেন, কিন্তু ১৪৪ ধারাকে উপেক্ষা করে গত ৬ নভেম্বর দিনগত রাতে মাহমুদুল হকের নেতৃত্বে ৫০-৬০ জনের সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা আমাদের উপর হামলা চালায়। তাদের হামলায় স্ত্রী, মেয়েসহ ৫ জন আহত হই। তারা আমাদের গোয়াল ঘরে আগুন দেয়। দুটি গরু লুট করে নিয়ে যায় হামলাকারিরা। রাতেই হামলার সময় ৯৯৯ নাম্বারে পুলিশের সহযোগিতা চাইলে পুলিশ এসে আমাদের রক্ষা করে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ৪দিন চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) চিকিৎসকরা আমাদের ছাড়পত্র দেয়। হাসপাতালে থাকায় আমরা কোথাও যেতে পারিনি। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

জমির মালিক দাবিদার মাহমুদুল হক তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি সেই দাগের ৪ শতক জমি ক্রয় করেছি। কিন্তু তারা দখল নিতে দেয়নি। আমরা রাতে দখলে গেলে ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এতে তাদের কয়েকজন অল্প আঘাত পেয়েছে। আমাদের ফাঁসাতে নিজেরাই গোয়াল ঘরে আগুন দিয়ে আইনী সহায়তা পাওয়ার চেষ্টা করছে। বিষয়টি খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান সমাধান করার কথা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস বলেন, ৯৯৯-এ কল পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করেছিল। এতদিন তারা চিকিৎসাধীন থাকলেও আমরা ঘটনাস্থলে নিরপেক্ষ তদন্ত চালিয়েছি। পর্যালোচনা করেছি নথিও। সেখানে উঠে এসেছে জারি থাকা ১৪৪ ভঙ্গ করা হয়েছে। যারা এমটি করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। আহতরা এতদিন হাসপাতালে থাকায় বিলম্ব হয়েছে।

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102