শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০২:৪৭ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

কিভাবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবেন ?

ডেস্ক নিউজ:
  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ৬ জুলাই, ২০২১
  • ৮০ বার পড়া হয়েছে

গ্রীষ্মের দাবদাহ থেকে স্বস্তি দেয় বর্ষা। তবে বর্ষার সময়ই রোগ বালাই এর সংখ্যা বেড়ে যায়। এই সময় সংক্রমণের সম্ভাবনাও অনেক বেড়ে যায়। সেই সাথে কমে যায় রোগ প্রতিরোধক্ষমতা। ফলে সর্দি, কাশি, ফ্লু ছাড়াও ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার মতো মশাবাহিত রোগ এবং কলেরা, টাইফয়েডের মতো সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়। এজন্য দরকার রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ানো। তবে শুধু বর্ষাকালে না সারা বছরই রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ানো দরকার। এজন্য এমন কিছু খাবার খেতে হবে যা পুষ্টির সঙ্গে আপনার শরীরকে স্বাভাবিকভাবে উজ্জীবিত করে তুলতে পারে।

১. সাইট্রাস ও মৌসুমি ফল: সাইট্রাস ফল হল ভিটামিন সি এবং ফাইবারের মতো পুষ্টির এনার্জিতে ভরপুর। এই ধরনের ফল শরীরে শক্তি জোগাতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সহায়তা করে। তাই অবশ্যই আপেল, পেয়ারা, কলা, বেদানা, পেপে, কিউই, আমলকি, কমলালেবু, লিচু, নাশপাতি, বেরি ইত্যাদি মৌসুমি ফল রোজকার ডায়েটে রাখুন। এই সব ফলগুলোতে উচ্চ মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট রয়েছে যা ব্লাড প্রেসার কমাতে সাহায্য করে।

২. বিট: বর্ষায় বাতাসের আদ্রতা বেশি থাকায় আমাদের হজম ক্ষমতা দুর্বল হয়ে যায়। বেশিরভাগ মানুষই এইসময় হজমের সমস্যায় ভোগেন। সেক্ষেত্রে নিয়মিত বিট খেলে হজম প্রক্রিয়া ভালো হবে। একই সঙ্গে বিট ওজন কমাতে এবং রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।এছাড়া বর্ষায় চুল পড়ার সমস্যাও থাকলে খাদ্যতালিকায় বিট যুক্ত করুন।

৩. ভুট্টা: কম ক্যালোরিযুক্ত এবং ফাইবারে ভরপুর ভুট্টা হল বর্ষায় একটি খুব ভালো স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস। এটিতে লুটেইন এবং দু’টি ফাইটোকেমিক্যাল রয়েছে যা দৃষ্টিশক্তি উন্নত করে। পাশাপাশি ভুট্টায় অদ্রবণীয় ফাইবারগুলো আমাদের অন্ত্রে ভালো ব্যাকটেরিয়া বাড়ায় যার ফলে হজমে সহায়তা হয়। নিজের ইচ্ছামত আপনি ভুট্টা খেতে পারেন।

৪. করলা: কোষ্ঠকাঠিন্য, আলসার এবং ম্যালেরিয়ার মতো রোগকে উপশম করার জন্য রোজকার ডায়েটে করলা রাখুন, কারণ করলাতে প্রদাহবিরোধী গুণ রয়েছে। করলা শরীরের ব্লাড সুগারের মাত্রাকে কম করে বলে ডায়াবেটিস রোগীরাও নির্দ্বিধায় করলা খেতে পারেন।

৫. ডাবের পানি: স্বাস্থ্যকর থাকতে এবং ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ রোধ করার অন্যতম উপায় হল শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা। সারা দিনে পানি খাওয়ার পরিমাণ বাড়ানোর সঙ্গেই দিনে একবার ডাবের পানি খেলে তা শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করবে। কারণ ডাবের পানি হল ইলেকট্রোলাইটের খুব ভালো উৎস। রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায় ডাবের পানি। এছাড়া হার্ট ভালো রাখে এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

সূত্র-কালেরকণ্ঠ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102