মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০২:৪১ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আলোকিত কক্সবাজার অনলাইন পত্রিকার  উন্নয়ন কাজ চলছে ; সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

এক ‘নক্ষত্র’র পতন!!!

আহমদ গিয়াস:
  • প্রকাশিত সময় : শনিবার, ২৫ জুলাই, ২০২০
  • ৫৯৬ বার পড়া হয়েছে
তিনি ছিলেন রোহিঙ্গা অধ্যুষিত একটি জনপদের অঘোষিত রাজা। টং দোকানের চা বিক্রেতা থেকে মালিক হয়েছেন হাজার কোটি টাকার সম্পদের। তার প্রতি মাসের আয় ছিল কয়েক কোটি টাকা। তার অবৈধ কর্মকান্ড ঢাকতে টাকা নিয়ে কিনে নিতেন মন্ত্রী, নেতা, সাংবাদিক সবাইকে। রোহিঙ্গাদের মধ্যে জঙ্গী তৈরি করে তাদের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে ভয় লাগিয়ে প্রায় ৩ দশক ধরে একছত্র রাজত্ব করেছেন তিনি। অনেকেই তাকে উখিয়ার এমপি বদি হিসাবেই জানে।
৯১ সালে শুরু হওয়া রোহিঙ্গা ঢল বদলে দেয় ওই টং দোকানের মালিকের জীবন। রোহিঙ্গা ব্যবসায় তার আর্থিক প্রতিপত্তির পাশাপাশি গড়ে ওঠে প্রবল ক্ষমতার দাপট। তার দাপটে এলাকার শিক্ষিত সমাজ এলাকায় বসবাস করতে ও বুক ফুলিয়ে সত্য কথা বলতে সাহস পেত না। যে সরকারই ক্ষমতায় আসুক না কেন, সেই সরকারের মন্ত্রী-এমপিসহ প্রভাবশালী ব্যক্তিদের সাথে সম্পর্ক তৈরি করে তিনি এতদিন তার ক্ষমতা ধরে রেখেছেন। অবশেষে সেই ‘নক্ষত্র’র ৩ দশকের রাজত্বের অবসান ঘটেছে একটি ‘অকল্পনীয়’ ঘটনার মাধ্যমে।
আমি নিশ্চিত দেশের অনেক প্রভাবশালী আজ বিব্রত হয়েছেন। আমিও আশ্চর্য হয়েছি পুলিশের বুকে পাটা দেখে! নিশ্চয় পুলিশকেও টাকা ও ক্ষমতা দিয়ে কিনে নিতে চেয়েছিলেন তিনি, পারেননি। আশাকরি তার নেটওয়ার্ক সম্পর্কে অনেক তথ্য পেয়েছে পুলিশ।
এরমধ্যে মন্ত্রী-নেতা-পুলিশ-সাংবাদিক; কে কত পেত- এই তথ্যটি জানতে খুব মন চায়। সেসাথে গত বছর জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে যে ২৫ জন ইয়াবাবান্ধব নেতা-জনপ্রতিনিধি-সাংবাদিকের তালিকা জমা দেয়া হয়েছিল তা কী ভুল ছিল বা উদ্দেশ্য প্রণোদিত ছিল? নয়ত: এত গর্জনের পরও পুলিশ এবিষয়ে নিশ্চুপ হয়ে গেল কেন?

অনলাইন বিজ্ঞাপন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

অনলাইন বিজ্ঞাপন

নিবন্ধনের জন্য আবেদিত
Design and Develop By MONTAKIM
themesba-lates1749691102