নির্বাচনী পরিকল্পনা নিয়ে বিপাকে বিএনপি

নির্বাচনী পরিকল্পনা নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ভাগ

ডেক্স নিউজঃ 

২০১৯ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। বিএনপি আগামি নির্বাচনে অংশ নেবে। কৌশলের আশ্রয় নেয়ার পক্ষে অবস্থান নিতে চায় দলটির শীর্ষ স্থানীয় নেতারা। তবে পাশে পাচ্ছে না তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের। এজন্য নির্বাচনী পরিকল্পনা নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিএনপি।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে দুবার আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে দলটি দেশবাসীর সামনে এখন নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের পাশাপাশি নির্বাচন সহায়ক সরকারের দাবি জোরদার করতে যাচ্ছে। নির্বাচনে সহায়ক সরকারের রূপরেখা সম্পর্কে এখনও পরিস্কার করে কিছু না বললেও নির্বাচন পুনর্গঠন ইস্যুতে রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎকে নিজেদের এক ধরণের বিজয় হিসেবে দেখছে বিএনপি।

দলীয় সূত্র জানায়, নিবন্ধন জটিলতা, নেতাকর্মী, সমর্থক, ভোটারদের ধরে রাখতে নির্বাচনে অংশ নেয়ার কোনো বিকল্প নেই। যেভাবেই নির্বাচন কমিশন বা নির্বাচনকালীন সরকার থাকুক না কেন সে অবস্থায়ই বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে।

বিএনপি সাংগঠনিকভাবে নড়বড়ে থাকায় দল এবং দলের সহযোগী সংগঠন গোছানোর প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছে- তবে তাতেও লাভ হচ্ছে না। দল এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠন এখন নানান হিসাব কষতে শুরু করেছে।

দলের সাংগাঠনিক শক্তিশালী চেইন বিএনপির এখন নাই। বিএনপির ৭৫টি জেলা কমিটি গঠনের জন্য ২০১৫ সালের ৯ আগস্ট সার্কুলারের মাধ্যমে বলা হয়েছিলো ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সবগুলো জেলা কমিটি শেষ করতে হবে। এখন পর্যন্ত ৭৫টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে মাত্র ২৩টি জেলা কমিটি গঠন হয়েছে। এই ২৩টির মধ্যে অন্তত ১৫টি কেন্দ্র থেকে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। তৃণমূলের সাথে কোনো যোগাযোগ নাই।

ধারণা করা হচ্ছে, ৭৫টি কমিটি গঠন করতে নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা হয়ে যাবে। ফলে নির্বাচনের জন্য একটি রাজনৈতিক দলের যে প্রস্তুতি নেয়া দরকার সেটা তারা নিতে পারবে না।

২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক বিএনপি ও জামায়াতের মধ্যে বাড়তে শুরু করেছে টানাপোড়েন। চাওয়া-পাওয়ার হিসাব মেলাতে গিয়ে তাদের মধ্যে দূরত্ব বেড়েই চলেছে।

নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য সাংগাঠনিক যে ভিত্তি দরকার সেটা নেই। কর্মীরা সংগঠিত থাকতে পারেনি বলে দলীয় কর্মীরা তাদের প্রার্থীর পক্ষে ভোট সংগ্রহ করতে পারেনি। তাদের নির্বাচনে বিজয়ের প্রস্তুতি নেই। সর্বশেষ ৩ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী রাখার ব্যাপারে এ টানাপোড়েন অনেকটা স্পষ্ট হয়েছে।

বিএনপির আন্দোলনে জামায়াতের সহযোগিতা পায়নি বলেই আন্দোলন পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়েছে বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে ও লন্ডনে পলাতক তারেক রহমান- এজন্য সঠিক দিক নির্দেশনা পাচ্ছে না দলের নেতারা। সব মিলিয়ে নির্বাচনী পরিকল্পনা নিয়ে বিপাকে আছে বিএনপি। সূত্র-অদ্বিতীয় বাংলা

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ