খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বই প্রকাশ করে ধরা খেলো দুইজন

খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বই প্রকাশ করে ধরা খেলো দুইজন

ভাগ

নিউজ ডেস্ক: 

আদালতের অনুমতি ছাড়াই জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দেয়া জবানবন্দি বই আকারে প্রকাশ করছে একটি চক্র। বইটিতে আদালতে দেয়া খালেদা জিয়ার জবানবন্দি, মামলার এজাহার ও অভিযোগপত্রসহ বিভিন্ন অসত্য তথ্য জুড়ে দেয়া হয়েছে।

৮ আগস্ট দুপুরে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‍্যাব-১০ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মো. কাইয়ুমুজ্জামান খান।

তিনি জানান, ৭ আগস্ট রাতে মিরপুর ১০ নম্বরে এসএ পরিবহন থেকে ৫ কার্টনে ‘রাজবন্দির জবানবন্দি’ নামের বইটির ৪৮৫টি কপিসহ আব্দুর রহমান নূর রাজন (৩২) ও মেহেদী আরজান ইভান (৩৭) নামে দুইজনকে আটক করা হয়।

তিনি বলেন, একটি গুরুত্বপূর্ণ মামলার তথ্য গোপন করে আদালত বা যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে মিথ্যা, বিকৃত ও অসত্য তথ্য সম্বলিত এই বইটি সিলেটের একটি প্রেসে ছাপিয়ে ঢাকায় বাজারজাত করতে চেয়েছিল গ্রেফতাররা। সরকারকে বেকায়দায় ফেলা, আদালত সম্পর্কে জনমনে বিভ্রান্তি ও অরাজক পরিস্থিতি তৈরি করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতেই তারা এই কাজ করছিল বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকতা।

তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা য়ায়, বইটি ছাপাখানা ও প্রকাশনা আইন মেনে প্রকাশ করা হয়নি। তার সহযোগী হিসেবে ইভান, ওয়াসিম ইফতেখারুল হক, শিপন মোল্লা, বৈরাম খাঁ ওরফে রেজওয়ানুল হক শোভন এবং আব্দুর রব চৌধুরী নামের কয়জন কাজ করছিলেন। তারা আদালতের অনুমতি ছাড়াই একে অপরের সহায়তায় বিচারাধীন একটি মামলার গুরুত্বপূর্ণ এক আসামির জবানবন্দি, মামলার এজাহার ও অভিযোগপত্র নিজ উদ্যোগে সংগ্রহ করে কতিপয় সুশীল সমাজের মন্তব্য সন্নিবেশ করে তা গোপনে প্রকাশ করে। গ্রেফতার রাজন ও ইভান মূলত একজন অনলাইন এক্টিভিস্ট ও সাইবার এনালিস্ট। তাদের কাছ থেকে জব্দ মোবাইল ও ল্যাপটপ থেকে সাম্প্রতিক ছাত্র আন্দোলনের বিষয়ে ফেসবুক উস্কানির বিভিন্ন পোস্ট পাওয়া গেছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিও বলেন, এই বই প্রকাশের পেছনে কোনো রাজনৈতিক নেতা কিংবা আরো কেউ জড়িত আছে কি না, বিষয়টি যাচাই-বাছাই চলছে। এঘটনায় রাজধানীর মিরপুর থানায় ছাপাখানা ও প্রকাশনা আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন।সূত্র-বাংলা নিউজ পোস্ট।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ