টেকনাফে সেভ দ্য চিলড্রেনের ৮৩ তম ‘শিশু বান্ধব কেন্দ্র্র

টেকনাফে সেভ দ্য চিলড্রেনের ৮৩ তম ‘শিশু বান্ধব কেন্দ্র্র

ভাগ

বিশেষ প্রতিবেদক:

শিক্ষায় পিছিয়ে পড়া কক্সবাজারের টেকনাফের নয়াপাড়া শরণার্থী শিবিরের নুর আলিপাড়া ক্যাম্পে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেনের ৮৩ তম শিশু বান্ধব কেন্দ্র উদ্বোধন হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি এ কেন্দ্রে নয়াপাড়া এলাকায় বসবাসকারী বাংলাদেশি শিশুরা এখানে পাঠগ্রহণে অংশ নিবে। সেভাবেই কেন্দ্রটি উন্মুক্ত রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেভ দ্য চিলড্রেনের চাইল্ড প্রোটেকশন’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মিকেলে কাসাল্বনি বলেন, শিশু বান্ধব কেন্দ্রগুলো শিশুর মনন বিকাশে উপযুক্ত একটি স্থান। যেখানে শিশুরা খেলতে পারে এবং স্বাভাবিক নিয়ম, শৃঙ্খলা শেখার সুযোগ পায়। কেন্দ্রগুলোতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক দল ও কর্মিদের দ্বারা শিশুরা মননশীল সামাজিক সহায়তাও পেয়ে থাকে।

মিকেলে কাসাল্বনি আরো বলেন, কেন্দ্রগুলোতে শিশুদের জন্য অধিবেশনের আয়োজন করা হয়। যেখানে তারা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে নিজেদের সুরক্ষিত রাখার বিষয়ে জ্ঞান পায়। এর মধ্যদিয়ে শিশু পাচার, নির্যাতন, শিশু শ্রম, বাল্য বিবাহ ইত্যাদি বিষয়ে শিশুরা সচেতনতার শিক্ষা পায়। এছাড়াও স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপন, সুস্বাস্থ্য ও সড়কে চলাফেরা নিয়ে সতর্কতার জ্ঞানও এখান থেকে পেয়ে থাকে তারা।

মঙ্গলবার বিকেলে কেন্দ্র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শরণার্থী, ত্রান ও প্রত্যাবাসন কমিশনের অতিরিক্ত উপ-সচিব মোঃ সামসুদ্দোজা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সহকারি সচিব ও টেকনাফ নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প ইনচার্জ মো. সাইফুল আলম এবং সহকারি ক্যাম্প ইন-চার্জ ও সহকারি সচিব মো. আরিফুজ্জামান, সংস্থার কক্সবাজারস্থ কমিউনিকেশন ও মিডিয়া কো-অরডিনেটর ফারজানা সুলতানা প্রমূখ।

অতিথিরা সরকার এবং বেসরকারি সাহায্য সংস্থাগুলোর কাজে সফলতা আনতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন। রোহিঙ্গা ও স্থানীয় শিশুদের আসন্ন ভবিষ্যতের মঙ্গল কামনা করেন তারা।

বক্তব্য শেষে অতিথিরা শিশু বান্ধব কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় শিশুদের আঁকা ছবি দেখেন ও শিশুদের আবৃত্তি শুনেন এবং তাদের সাথে পড়ালেখার বিষয়ে কথা বলেন।

উদ্বোধনিতে স্থানীয় ও রোহিঙ্গা মিলে প্রায় এক হাজার নারী, পুরুষ ও শিশু এবং ইউনিসেফ ও সেভ দ্য চিলড্রেনের কক্সবাজার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।
উল্লেখ্য, সেভ দ্য চিলড্রেন এ পর্যন্ত ৯২ টি শিশু ও নারী বান্ধব কেন্দ্র স্থাপন করেছে, যেখানে প্রায় ৪০ হাজার শিশু খেলাধুলার সুযোগ পাচ্ছে।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ