রামুতে হানিফ-সোহাগের মুখোমুখী সংঘর্ষে চালকসহ আহত-৩০

রামুতে হানিফ-সোহাগের মুখোমুখী সংঘর্ষে চালকসহ আহত-৩০

ভাগ

বিশেষ প্রতিবেদক:
কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রামু ডিগ্রী কলেজের সামনে সোহাগ-হানিফ পরিবহনের দু’বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ৩০ যাত্রী আহত হয়েছেন। তৎমধ্যে সোহাগ পরিবহনের সামনের অংশে আটকানো চালককে ২ পা চরম জখম অবস্থায় উদ্ধারর করা হয়েছে। তিনিসহ অন্তত দশ যাত্রীর অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।
তাদের উদ্ধার করে কক্সবাজার ও রামু হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দূর্ঘটনায় সড়কের দুপাশে ঘন্টাব্যাপী শত শত যান আটকে গিয়ে চলাচল বন্ধ থাকে।

তবে তৎক্ষনাত আহত কারো নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।
রামু হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মুজাহিদুল ইসলাম তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কক্সবাজার মুখী হানিফ বাসের (ঢাকামেট্টো-ব-১৪-১৬৯৭) সাথে চট্টগ্রাম মুখী সোহাগ পরিবহনে (ঢাকামেট্টো-ব-১৪-৫৩১৮) অপর বাসের সাথে রামু কলেজ গেইট এলাকায় মুখোমুখী সংঘর্ষ লাগে। এতে সোহাগ বাসের সামনে অংশ পেছনে সরে গিয়ে চালকের দুপা ভেতরে আটকে যায়। ধাক্কার তুড়ে কমবেশি আহত হন দু বাসের অন্তত ৩০ যাত্রী। দু’বাসের মুখোমুখী সংঘর্ষে বিকট শব্দ হলে চারপাশের লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তারা সোহাগ বাসের সামনের অংশ কেটে আটকে যাওয়া চালকে বের করেন। সামনাসামনি সংঘর্ষ হওয়ায় অপর বাসের চালকও আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে কক্সবাজার ও রামু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তৎক্ষনাত কারো নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।
ওসি আরো জানান, দূর্ঘটনার কারণে রাস্তার দুপাশে শত শত গাড়ি আটকা পড়ে যান চলাচল একপ্রকার বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে দমকলবাহিনী, পুলিশ ও স্থানীয়রা এগিয়ে এসে বাস দুটি সরানোর চেষ্টা করছে। তবে কি কারণে দূর্ঘটনাটি হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করা যায়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি।
এদিকে, নিজ কাজে চকরিয়া যাবার কালে দূর্ঘটনাস্থলে আটকা পড়েন মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক। তিনিও নেমে রাস্তার চলাচল স্বাভাবিক করতে তৎপরতা চালান। তার সাথে আটকা পড়েন শত শত শিক্ষার্থীও। বেলা সোয়া তিনটা (এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) পর্যন্ত সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে চেষ্টা চলছিল।
ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ