নারীদের নিজ ঘরে নামাজ আদায়ের ফজিলত

নারীদের নিজ ঘরে নামাজ আদায়ের ফজিলত

ভাগ

ধর্ম ডেস্ক

 

হাদিসে এসেছে, ‘নারীরা পর্দার আড়ালে থাকার যোগ্য। নারী যখন বাড়ি থেকে বের হয়, তখন শয়তান তার ওপর প্রবল হয়ে যায়।’ এ হাদিসের আলোকে বুঝা যায়, নারীদের বিনা প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে যাওয়া অপছন্দনীয়। বাড়িতে বসেই তাদের অনেক ইবাদত-বন্দেগি করার সুযোগ রয়েছে।

নারীদের নামাজ আদায় প্রসঙ্গে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অনেক হাদিস বর্ণনা করেন। তন্মধ্যে কয়েকটি তুলে ধরা হলো-

>> হজরত আবদুল্লাহ রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘কোনো নারী (যখন) তার বাড়ির সবচেয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন কক্ষে বসে যে নামাজ আদায় করেন; সেই নামাজ আল্লাহর কাছে অধিক প্রিয়।’ (ইবনে খুজায়মা, তাবারানি, আত-তারগীব)

তবে নারীদের মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় নিষিদ্ধ নয়। তারা মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করতে পারবে। প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর যুগে নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করেছেন। এমনকি অন্ধকার রাতে ফজরের নামাজও মসজিদে গিয়ে পড়েছেন।

তবে নামাজ আদায়ে তাদের জন্য মসজিদে যাওয়া আবশ্যক করা হয়নি। কারণ মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় আবশ্যক করা হলে তা পালন করা তাদের জন্য খুবই কঠিন হয়ে যেত।

>> হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘তোমরা তোমাদের নারীদেরকে মসজিদে যেতে নিষেধ করবে না। তবে তাদের ঘর (নামাজ আদায়ে) তাদের জন্য উত্তম।’ (আবু দাউদ, আত-তারগিন, আলবানি হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন)

নারীদের ঘরে নামাজ আদায়ের ফজিলত বর্ণনায় প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একটি দীর্ঘ হাদিস রয়েছে। আর তাহলো-

হজরত উম্মু হুমাইদ রাদিয়াল্লাহু আনহা বর্ণনা করেন, ‘একদিন তিনি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছে গিয়ে বললেন, ‘হে আল্লাহর রাসুল! আমি আপনার সঙ্গে নামাজ আদায় করতে ভালোবাসি।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, আমি জানি যে, তুমি আমার সঙ্গে নামাজ আদায় করতে ভালোবাস।

কিন্তু জেনে রেখো! তোমার ঘরে নামাজ আদায় তোমার কক্ষে নামাজ আদায়ের চেয়ে উত্তম। তোমার কক্ষে নামাজ আদায় তোমার বাড়িতে নামাজ আদায় থেকে উত্তম।

আর তোমার বাড়িতে নামাজ আদায় তোমার কওমের মসজিদে নামাজ আদায় থেকে উত্তম। আর তোমার কওমের মসজিদে নামাজ আদায় আমার এ মসজিদে নামাজ আদায় হতে উত্তম।

অতঃপর ওই নারীর নির্দেশে তার বাড়ি থেকে সবচেয়ে দূরবর্তী ও অন্ধকারাচ্ছন্ন জায়গায় একটি মসজিদ নির্মাণ করা হলো। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি সে মসজিদেই নামাজ আদায় করতেন।’ (মুসনাদে আহমদ, ইবনু খুজায়মা, ইবনু হিব্বান, আত-তারগিব)

উল্লেখ্য যে, বর্তমান সময়ে ফেতনা-ফাসাদ চরম আকার ধারণ করছে। এ অশান্ত সমাজে নারীদের জন্য মসজিদের চেয়ে নিজ ঘরে নামাজ আদায় সর্বোত্তম। তবে নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকলে মসজিদে গিয়ে নারীদের মসজিদে নামাজ আদায়ে কোনো বিধি নিষেধ নেই।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সব নারীকে নিজ নিজ ঘরে নামাজ আদায় করে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের হাদিসের ওপর আমল করার তাওফিক দান করুন। শয়তানের ভয়ংকর থাবা থেকে নিজেদেরকে হেফাজত করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ