বিজিবির জন্য কেনা হচ্ছে দুটি হেলিকপ্টার

বিজিবির জন্য কেনা হচ্ছে দুটি হেলিকপ্টার

ভাগ

আলোকিত কক্সবাজার ডেক্স:

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর জন্য দুটি হেলিকপ্টার কিনছে সরকার। দুর্গম ও পাহাড়ি এলাকায় দ্রুত পৌঁছানোর জন্য হেলিকপ্টারগুলো ব্যবহৃত হবে। ইতোমধ্যে হেলিকপ্টার দুটি কেনার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার রাজধানীর পিলখানায় বিজিবির সদর দফতরে বিজিবি দিবস ২০১৭ উপলক্ষে আয়োজিত কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সীমান্তরক্ষায় বিজিবি সদস্যরা বলিষ্ট ভূমিকা রাখছে। বিজিবি সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধি, পেশাদারিত্ব তৈরি ও সৈনিকদের আবাসন সমস্যা সমাধানে সরকার বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। সীমান্তরক্ষা বাহিনীর আধুনিকায়নে বর্ডার গার্ড আইন-২০১০ হয়েছে। আইন অনুযায়ী এ বাহিনীর আধুনিকায়নে কাজ চলছে।

বিজিবির সার্বিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিজিবির সন্তানদের ২৫ বছর পর্যন্ত রেশন প্রদান ও তাদের প্রতিবন্ধি সন্তানদের চাকরি প্রদানসহ বিশেষ ভাতা দেয়া হচ্ছে। বিজিবির সদস্যদের জন্য বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ও হেলমেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কমব্যাট ও অফিস ড্রেস চার সেট করা হয়েছে। এছাড়া সার্ভিস ড্রেস প্রবর্তন করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে সাবলম্বী হচ্ছে। বর্তমানে দেশের অর্থনীতি মজবুত, শক্তিশালী। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ২০১২ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

এছাড়া বাংলাদেশকে ক্ষুধামুক্ত ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে বিজিবি সদস্যদের দেশপ্রেম, সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্বপালনের আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, মিয়ানমারে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে বিজিবির নতুন রিজেন্ট গঠনসহ অতিরিক্ত ২৫ প্লাটুন জনবল বৃদ্ধি করা হয়েছে। মিয়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদের চিকিৎসা, রিলিফ প্রদান ও রেজিস্ট্রেশনসহ পুনর্বাসন কার্যক্রমে বিজিবি অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। বিজিবির জনবল ৮ হাজার ৬৬২ জন জনবল বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং সীমান্তে সক্ষমতা বৃদ্ধিতেও জনবল বৃদ্ধি পেয়েছে।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ