নরেন্দ্র মোদির চামড়া তুলে নেওয়ার হুমকি দিলেন লালু প্রসাদের ছেলে!

নরেন্দ্র মোদির চামড়া তুলে নেওয়ার হুমকি দিলেন লালু প্রসাদের ছেলে!

ভাগ

আলোকিত কক্সবাজার ডেক্স:

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চামড়া তুলে নেওয়ার হুমকি দিলেন বিহারের সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী তেজপ্রতাপ যাদব। এর আগে  উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল মোদির বাড়িতে গিয়ে তাকে মারধরের হুমকিদাতা তেজপ্রতাপ হচ্ছেন রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদবের বড় ছেলে।

রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি) প্রধান লালু প্রসাদ যাদব ভারতীয় রাজনীতিতে বহুল আলোচিত চরিত্র। সম্প্রতি সরকার এই বর্ষীয়ান রাজনীতিককে দেওয়া ‘জেড প্লাস’ শ্রেণির নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রত্যাহার করে শুধু ‘জেড’ শ্রেণিতে নেওয়ার কথা জানায়।

সরকারের এমন সিদ্ধান্তে ক্ষিপ্ত হয়ে তেজ যাদব সাংবাদিকদের বলেন, লোকজনের অনুষ্ঠানে আমাদের মতো ব্যক্তিরা নিয়মিত আসা-যাওয়া করে। লালুজীও এমন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নেন। এমন অবস্থায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা  (জেড প্লাস) প্রত্যাহার করার মানে তাকে খুন করার ষড়যন্ত্র পাকানো হচ্ছে। আমরা এর দাঁতভাঙা জবাব দেব এবং নরেন্দ্র মোদিজীর চামড়া তুলে নেব।

প্রসঙ্গত, সরকারি সিদ্ধান্তের পর লালু প্রসাদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত কমান্ডোদের প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। এভাবে লালুসহ দেশটির শীর্ষ আট ভিভিআইপি রাজনীতিকের নিরাপত্তা ব্যবস্থার মান কমিয়ে আনা হয়েছে। এর আগে লালু প্রসাদ ও তার স্ত্রী সাবেক মুখ্যমন্ত্রী রাবরি দেবি পাটনা বিমানবন্দরে যে বিশেষ প্রটোকল পেতেন তাও চলতি বছর জুলাইয়ে প্রত্যাহার করে নেয় বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার।

এদিকে, গত সপ্তাহে লালুর ছেলে তেজ বলেছিলেন, তিনি যদি উপমুখ্যমন্ত্রী সুশিল মোদির ছেলের বিয়ে উপলক্ষ্যে তাদের বাড়িতে যান তবে তাকে সেখানেই পেটাবেন, তার মুখোশ খুলে দেবেন। তার এমন বক্তব্যে তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয় তখন।

 

প্রসঙ্গত, গত বছর সেপ্টেম্বরে তেজ যাদবের সঙ্গে বিহারের মোস্টওয়ান্টেড ক্রিমিনাল মোহাম্মদ কাইফের একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। তখন বিজেপির পক্ষ থেকে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়। এর জবাবে তেজপ্রতাপ কুখ্যাত সেক্স-র‌্যাকেট গ্যাং লিডার টিনু জৈনের সঙ্গে তোলা নরেন্দ্র মোদির ছবি নিজের ফেসবুক পেজ-এ দিয়ে দাবি করেন, আমার পদত্যাগ যারা চাইছেন তাদের তো আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পদত্যাগ চাওয়া উচিৎ। তিনি আরও দাবি করেন, টিনু জৈন ক্ষমতাসীন বিজেপির (ভারতীয় জনতা পার্টি) সদস্যও ছিলেন।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ