রোহিঙ্গা সম্যসা স্থায়ী সমাধান করবেন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা

রোহিঙ্গা সম্যসা স্থায়ী সমাধান করবেন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা

ভাগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি,

যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা যেমন গঙ্গার পানি চুক্তি করেছেন, সহিংসতা ছাড়া পার্বত্য শান্তি চুক্তি করেছেন, ছিটমহল সমস্যার সমাধান করেছেন, সমুদ্র সীমানা বাড়াতে পেড়েছেন, যিনি জলে-স্থলে বাংলাদেশের মানচিত্র সম্প্রসারিত করতে পেরেছেন, ৫৬ হাজার বর্গ মাইলের বাংলাদেশ কে যিনি দুই লক্ষ ছয়চল্লিশ হাজার সায়ত্রিশ করতে পেরেছেন, তিনিই পারবেন বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গা সম্যসার স্থায়ী সমাধান করতে।

মঙ্গলবার (৩অক্টোবর) সকাল ১১টায় উখিয়া ডিগ্রী কলেজ মাঠে যুবলীগ ত্রাণ বিতরণকালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।

পরে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিগ্রেডিয়ার লে: ক: মাইন ও লে: ক: রাশেদ এর নিকট বাংলাদেশে আশ্রিত দশ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের জন্য ত্রান সামগ্রী হস্তান্তর করেন।

তিনি বলেন, আজ সারা বিশ্বে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে যে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা বিশ্বে ইতিহাস হয়ে থাকবে। আজকে বিশ্বনেতারা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি ডটার অব পিস’ নামে ভূষিত করেছে। অপরদিকে সংযুক্ত আরব-আমিরাতের (ইউএই) বহুল প্রচারিত ইংরেজী দৈনিক ‘খালিজ টাইমস’ রোহিঙ্গা সংকটের প্রতি মানবিক অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার উচ্ছসিত প্রশংসা করে তাকে ‘প্রাচ্যের নতুন তারকা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, পদ্মাসেতু নিয়ে বিএনপি-জামায়াতসহ অনেক বুদ্ধিজীবীরা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার সমালোচনা করেছেন। কেউ কেউ বলেছেন, তার পক্ষে এতবড় সেতু নিজস্ব অর্থায়নে করা সম্ভব নয়। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা পদ্মাসেতুকে দৃশ্যমান করে দেখিয়ে দিয়েছেন আমরাও পারি। তিনি বলেন, দৃশ্যমান-স্বপ্নের সেতু-স্বপ্ন হল বাস্তবতা-স্বপ্ন পূরণের দিন ছিলো গত ৩০ সেপ্টেম্বর। স্বপ্ন থেকে দৃশ্যমান পদ্মাসেতু এখন সবাই উপলব্ধি করতে পারছেন।

ত্রাণ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মোঃ ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরন, আবদুস সাত্তার মাসুদ, মোঃ আতাউর রহমান আতা, এড. বেলাল হোসাইন, শাহজাহান ভূইয়া মাখন, জাকির হোসেন খাঁন, শেখ আতিয়ার রহমান দিপু, যুগ্ম সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ মহি, সুব্রত পাল, নাসরিন জাহান শেফালী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহা: বদিউল আলম, আসাদুল হক আসাদ, ফারুক হাসান তুহিন, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুর রহমান মিজু, শফিকুল ইসলাম, এড. কায়সার আহম্মেদ, ইকবাল মাহমুদ বাবলু, সহ সম্পাদক কাজী মারুফুল ইসলাম বিপ্লব, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন স্বপন, সহ সভাপতি সোহরাব হোসেন, চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা যুবলীগ সভাপতি আ ম ম টিপু সুলতান চৌধুরী, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশেদুল আলম, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন, ফরিদ মাহমুদ, মাহবুবুল হক সুমন, বান্দরবন জেলা যুবলীগের আহবায়ক মোহম্মদ হোসাইন, খাগরাছাড়ি জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মেহেদী হাসান হেলাল, সাধারণ সম্পাদক কে এম ইসমাইল হোসেন। কক্সবাজার জেলা সভাপতি মোঃ খোরশেদ সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, সহ-সভাপতি এড্ঃ শহীদুল্লাহ চৌধুরী, শহীদুল হক সোহেল, সোহেল আহমদ বাহাদুর, সহ-অর্থ সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন, স্বরূপম পাল পাঞ্জু, বেন্টু দাশ, পৌর যুবলীগের আহবায়ক সোয়েব ইফতেখার, যুগ্ম আহবায়ক ডালিম বড়ুয়া, আসাদ উল্লাহ, শাহেদ মোঃ এমরান, সদর যুবলীগের সভাপতি ইফতেখার উদ্দিন পুতু, উখিয়া যুবলীগ সভাপতি মুজিবুল হক আজাদ, সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন প্রমুখ।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই

একটি উত্তর ত্যাগ