হাসপাতালের বাথরুমে ধর্ষণের শিকার যুবক!

প্রকাশ: ২০১৯-১১-০১ ০০:০৬:১৭ || আপডেট: ২০১৯-১১-০১ ০০:০৬:১৭

ডেস্ক নিউজ:

ভারতের শিলিগুড়ির জেলা হাসপাতালের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে বিকৃত যৌন লালসার অভিযোগ এনেছে এক পুরুষ রোগী এবং তার পরিবারের লোকেরা। ধর্ষণের শিকার ওই যুবক শিলিগুড়ির প্রধাননগরের গুরুং এলাকার বাসিন্দা। মঙ্গলবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, জ্বর নিয়ে গত সোমবার তাকে পরিবারের লোকেরা শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের পুরুষ বিভাগে ভর্তি করেন। শুধু তাই নয়, রাতের বেলায় বছর পঁচিশের ওই যুবককে দেখভাল করার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে একজন নারী আয়া ঠিক করে রেখে দেওয়া হয়। পরে মঙ্গলবার সকালবেলা অমিত বিশ্বাস নামের এক যুবককে তার দায়িত্ব দিয়ে চলে যান ওই আয়া। কিন্তু মঙ্গলবার দুপুরে ফের জ্বর আসলে অমিত নামের ওই যুবক তাকে গোসল করার পরামর্শ দেয়। এবং বলেন, জ্বর অবস্থায় গোসল করলে কিছুটা আরাম পাওয়া যাবে। সেই মতো অমিত ওই রোগীকে গোসল করানোর নাম করে বাথরুমে নিয়ে গিয়ে দরজা বন্ধ করে তার গলায় ব্লেড ধরে যৌন নির্যাতন চালায়।

অভিযুক্ত অমিতের হাত থেকে বাঁচতে কোনওরকমে বাথরুমের দরজা খুলে বাইরে বেরিয়ে এসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানায় ওই যুবক। কিন্তু তাতে কাজ না হলে পরিবারের সদস্যদের কাছে গোটা বিষয়টি খুলে বলেন তিনি। এরপর মঙ্গলবার বিকালে ওই যুবকের পরিবারের পক্ষ থেকে ওই ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে শিলিগুড়ি কমিশনারেটের শিলিগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

এই বিষয়ে ওই হাসপাতালের সুপার অমিতাভ মণ্ডল বলেন, অভিযুক্ত যুবক তাদের হাসপাতালের কেউ নয়। তবে তিনি গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন।

সূত্র: কলকাতা টোয়েন্টিফোর/কালেরকণ্ঠ

ট্যাগ :