রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি নিহত

প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৩ ১২:০১:১৫ || আপডেট: ২০১৯-০৮-২৩ ১২:০৭:৩৯

ওয়াহিদ রুবেল, ২৩ আগস্ট ১৯ ইং

কক্সবাজারের টেকনাফ হ্নীলা জাদিমোড়া এলাকায় নিজ বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ওমর ফারুক (৩০) নামের এক যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটায় জাদিমোড়া ও শালবন সড়কের স্যলিডেটরি ইন্টারন্যাশনাল (এসআই) ট্যাংক নাম স্থানে তাকে হত্যা করা হয়।

নিহত ওমর ফারুক উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোড়া এলাকার মোনাফ কোম্পানির ছেলে। তিনি হ্নীলা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগ ও জাদিমোড়া এম আর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ছিলেন।

নিহতের বড়ভাই আমির হামজা বলেন, বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট) রাত সাড়ে দশটার সময় রোহিঙ্গা ডাকাত সর্দার সেলিমের নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারি বাড়ি থেকে আমার ভাইকে তুলি নিয়ে গিয়ে গুলি করে হত্যা করেছে। আমরা ভাইয়ের গুলিবিদ্ধ লাশ আনতে গেলে আমাদের উপর ফাঁকা গুলি করে। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করেছে।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, ওমর ফারুখকে গুলি করার খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়। এরআগে তারা ওমরকে গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে লাশ উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, শালবন এলাকার গভীর পাহড়ে সেলিম নামে এক রোহিঙ্গা ডাকাত এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে শোনেছি। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ২৭ নং ক্যাম্পটি নিহত ওমর ফারুকের বাবার জমিতে গড়ে উঠেছে। রোহিঙ্গা আসার শুরুতে ওমর রোহিঙ্গাদের সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে দেয়। জীবন নিয়ে রোহিঙ্গারা প্রীতির প্রতিদান মিয়ানমারের বস্তুচ্যুত্ত রোহিঙ্গারা।

ট্যাগ :