আলোকিত কক্সবাজার“চম্পা হত্যায় জড়িত সাজ্জাদকে ধরে পুলিশে দিলো জনতা” - আলোকিত কক্সবাজার “চম্পা হত্যায় জড়িত সাজ্জাদকে ধরে পুলিশে দিলো জনতা” - আলোকিত কক্সবাজার

“চম্পা হত্যায় জড়িত সাজ্জাদকে ধরে পুলিশে দিলো জনতা”

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১১ ১৭:২৭:১৩ || আপডেট: ২০২০-০৫-১১ ১৭:২৭:১৩

মো: নাহিদ:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় নির্মমভাবে খুন হওয়া খরুলিয়া এলাকার বাসিন্দা চম্পা (১৭) হত্যাকান্ডের সন্দেহভাজন পালাতক আসামি সাজ্জাদ হোসেন (২৮) কে ধরে পেকুয়া থানা পুলিশকে তুলে দিলো স্থানীয় জনতা।

সোমবার (১১ মে) আজ সকাল ১০টার দিকে পেকুয়া সদর শেখের কিল্লা ঘোনা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

সাজ্জাদ হোসেন সদর ইউনিয়নের শেকেরকিল্লাঘোনা এলাকার আবুল হোসেন প্রকাশ পুতুর ছেলে।

এরআগে র‌্যাবের হাতে আটক হন মূল হোতা সিএনজি চালক জয়নালকে আটক করে।

জানা যায়, গত ৬ মে কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুলিয়া এলাকার বাসিন্দা রুহুল আমিনের মেয়ে চম্পা চট্টগ্রাম ফুফুর বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে পেকুয়া-চকরিয়া-কক্সবাজার হাইওয়ে জঙ্গলকাটা মৌলভী ব্রীজ নামক স্থানে রাত অনুমান এগারোটার দিকে চলন্ত সিএনজি থেকে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। পরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েটিকে দেখতে পেয়ে চকরিয়া থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরের দিন ময়না তদন্তের পর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ময়না তদন্তে উঠে আসে খুন করার আগে চম্পাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাবের একটি টিম অীভযান চালিয়ে সিএনজি চালক জয়নালকে আটক করে। আটক জয়নাল খুন ও ধর্ষণের সাথে তার সহযোগি হিসেবে সাজ্জাদের জড়িত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে স্বীকারোক্তি দেন।

আজ সকাল ১০টার দিকে পেকুয়া সদর শেখের কিল্লা ঘোনা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল আজম আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আজ সকালে স্থানীয় লোকজন সাজ্জাদকে ধরে পুলিশকে খবর দিয়েছে। পেকুয়া থানা পুলিশ গিয়ে তাকে আটক করে নিয়ে আসা হয়েছে।

ট্যাগ :

আর্কাইভ

জুন 2020
রবি সোম বুধ বৃহ. শু. শনি
« মে    
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
দৃষ্টি আকর্ষণ